ক্যাটেগরিঃ ব্লগ

অবশ্যই সাগর-রুনি, বিশ্বজিৎ কিংবা যে কোন নাগরিকের হত্যার বিচার হওয়া উচিৎ। এই ঘটনাগুলো নিয়ে বাংলাদেশের প্রচার মাধ্যম নিয়মিত প্রতিবেদন করে যাচ্ছে, যা প্রথমতঃ এসব হত্যার বিচারের পক্ষে প্রবল জনমতেরই প্রতিফলন, দ্বিতীয়তঃ সরকার ও প্রশাসনের ওপর নিয়ত চাপ সৃষ্টি করে যাচ্ছে এসব হত্যাকাণ্ডের সুরাহা করার জন্য। এসব বিচারের দাবীতে আমাদের আরও সোচ্চার হওয়া উচিৎ বলে আমি মনে করি।

তবে খেয়াল রাখতে হবে কেউ যাতে বাংলাদেশের নিত্যদিনের খুন-রাহাজানির বিচারের সাথে একাত্তরের ঘাতকদের বিচারকে গুলিয়ে না ফেলে। হোমিসাইড আর জেনোসাইড এক জিনিস নয়। ব্যক্তিগত স্বার্থে, সম্পত্তির লোভে কাউকে খুন করা অবশ্যই অপরাধ, কিন্তু কোন অপ-আদর্শের দোহাই দিয়ে একটি পুরো জাতিকে পঙ্গু করে দেয়ার চেষ্টা করা একটি সম্পূর্ণ ভিন্ন মাত্রার অপরাধ। প্রথম ক্ষেত্রে প্রচলিত আদালত ও তদন্ত ব্যবস্থার (যদি তা ঠিকমত কাজ করে) মাধ্যমেই অপরাধীদের খুঁজে বের করা ও সাজা দেয়া যায়, দ্বিতীয় ক্ষেত্রে প্রচলিত আদালতের বাইরেও গণ সচেতনাতা গ্ণ-জাগরণ তৈরী করেত হয়। একাত্তরের পরের চার দশকে মনে হচ্ছিল মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের পরও সেই চেতনা ধরে রাখতে, ছড়িয়ে দিতে আমরা ব্যর্থ হয়েছি। শাহবাগ আমাদের সেই ধারণা ভুল প্রমাণ করেছে।

আসুন সবাই মিলে, শাহবাগ যে দীপ জ্বেলেছে সেই দীপের আলো সারাবিশ্বে ছড়িয়ে দিই। আর, যারা নানান অবান্তর কথা তুলে সেই দীপকে নিভিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে, ভুলে যাবেন না একাত্তরেও তেমন লোকের অভাব ছিল না। এদের উত্তর দেয়া সময়ের হাতে ছেড়ে দিন।