ক্যাটেগরিঃ ব্লগালোচনা

 

অনেক দিন হল নগর নাব্য নিয়ে কোন আপডেট আসেনি।এর অর্থ এই নয় নগর নাব্যের কাজ থেমে আছে বা ছিল।নগর নাব্যের কাজ চলছে পূর্ণগতিতে।নগর নাব্যে ব্লগারদের প্রাণের দাবি।সুতরাং নগর নাব্য ছিল,আছে এবং এবং চীরদিন থাকবে। এটি ব্লগারদের নিজস্ব সম্পদ।সকলের সহযোগিতার পূর্ণ ফসল।নগর নাব্য -২০১৩ এই যাত্রায় ব্লগাররা সকলে মিলে বাছাই করেছিল নিজের পছন্দের পোষ্টগুলো।সকলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আমরা পেয়েছিলাম প্রায় ৩০০+ পোষ্ট।

নগর নাব্য ২০১৩: আপনার পছন্দের পোস্টের লিংক জমা দিন

নগর নাব্য-২০১৩: আপডেট ০২

পোস্ট লিংক প্রস্তাবনায় সকল ব্লগারদের পাশাপাশি যারা কমিটিতে ছিলেন এবং লিঙ্ক প্রস্তাবনায় সাহায্য করেছেন-
১. নীলকন্ঠ জয়
২. প্রবাসী
৩. সুলতান মির্জা
৪. আতাস্বপন
৫. আরিফ হোসেন সাঈদ
৬. মোঃ তানভীর সাজেদিন নির্ঝর
৭. মাহি জামান
৮. সত্য কথক
৯. পরাজিত মধ্যবিত্তের একজন
১০. আজাদ হুমায়ুন

এর পরপরই শুরু হয় প্রাথমিক বাছাই পর্ব। এই পর্বে একটি প্রাথমিক বাছাই কমিটি প্রস্তাব করা হয়।এই কমিটির সদস্যদের কাছে ই-মেইলের মাধ্যমে প্রস্তাবিত সকল পোষ্টের একটি তালিকা পাঠানো হয় এবং বাছাই পর্বটি নিরপেক্ষতার সার্থে সম্পূর্ণ গোপনীয়তা রক্ষা করা হয়।

নগর নাব্য-২০১৩: প্রাথমিক বাছাই কার্যক্রম চলছে: আপডেট-০৩

প্রাথমিক বাছাই কমিটিতে যারা সহযোগিতা করেছেন-
১. জিনিয়া
২. মাধুরী শিকদার
৩. যহরত
৪. জামান বাবু
৫. মোঃ তানভীর সাজেদিন নির্ঝর
৬. নীলকন্ঠ জয়

প্রাথমিক বাছাই কমিটির কাছে প্রায় ৩০০+ পোস্ট জমা দেয়া হয়। কমিটির নির্বাচন মোতাবেক একটি সংকলিত তালিকা প্রস্তুত হয়, যেখানে ৬০টির মত পোস্ট নির্বাচিত হয়।এই তালিকা দেয়া হয় চূড়ান্ত বাছাই কমিটির কাছে। তাদের নির্বাচন মোতাবেক, ১৫টি পোস্ট নিযে চূড়ান্ত তালিকা প্রস্তুত হয়।

চূড়ান্ত বাছাই কমিটিতে যারা ছিলেন-
১. হৃদয়ে বাংলাদেশ
২. মোত্তালিব দরবারী

পাণ্ডুলিপি’র কাজ যেভাবে হল/হচ্ছে:
এরপরের কাজ আরো কষ্টকর ছিল। প্রকাশনায় ইউনিকোড ভিত্তিক ফন্ট চলে না। তাই সকল নির্বাচিত পোস্ট কনভার্ট করা হল বিজয়ে।
ইউনিকোড টু বিজয়

কনভার্ট করার পর অনেক শব্দ ভেঙ্গে যায়। অনুচ্ছেদ(প্যারাগ্রাফ) এলোমেলো হয়ে যায়। পোস্টের মধ্যে ইংরেজি থাকলে সেটাও বাংলা ফন্ট হয়ে যায়। তাই ফন্ট কনভার্ট করার পরে এগুলো রিভিউ করা হয়েছে যথা সম্ভব।

গতবার নগর নাব্য প্রকাশনায় প্রতিটি লেখার সাথে পোস্টের লিংক যুক্ত করা হয়েছিল। তবে এবার সেটা করা হয়নি। যদিও পোস্ট প্রকাশের তারিখ দেয়া আছে। এর কারণ হচ্ছে, ব্লগের নতুন চেহারা নিয়ে আবির্ভাবের একটা জোর কানাঘুষা আছে … হয়ত এ বছরই…ব্লগের মূল ইউআরএল ঠিক থাকলেও, পোস্টের ইউআরএল নতুন ফরম্যাটে হতে পারে, তাই এই কনফিউশন এড়াতে এবার লিংক দেয়া হল না।

গতবার ২৭টি লেখা নির্বাচিত হওয়ায়, প্রায় ১০০+ মন্তব্য যুক্ত হওয়ায় প্রকাশনা কলেবরে ঢাউস ছিল। দামও হয়ত অনেকের কাছে একটু বেশি ঠেকছিল। এবার তাই ১৫টি লেখা নির্বাচিত হয়েছে। ব্লগাররা জেনে আনন্দিত হবেন, মন্তব্য এবারও যুক্ত হয়েছে। এবারও কোনভাবেই ১০০ এর নীচে মন্তব্য সংখ্যা আটকে রাখা গেল না। বলতে গেলে ১০০+ মন্তব্য যুক্ত হয়েছে !!!

লেখা নির্বাচনে কমিটির সদস্যরা যে সকল বিষয় লক্ষ্য করেছেন:
১. মূল প্রকাশনায় একজন ব্লগারের ১টি লেখাই স্থান পাবে
২. লেখার বিষয়বস্তুর বৈচিত্র্যতা
৩. যাদের লেখা ইতিমধ্যে ২০১২ সংকলনে প্রকাশিত, সেই সব ব্লগারদের পোস্ট নগর নাব্য ২০১৩ – এ প্রকাশ হচ্ছে না
৪. দীর্ঘ শিরোনামযুক্ত পোস্টের ক্ষেত্রে শিরোনাম সম্পাদনা
৫. কপিপেস্ট পোস্ট বর্জন ও মৌলিক মতামত সম্বলিত পোস্ট নির্বাচন
৬. কমিটির সদস্য নিজের পোস্টকেও মনোনয়ন দিতে পারেন। কেউ বিরত থাকতে চাইলে তাও গ্রহণযোগ্য ছিল। এক্ষেত্রে যার যার ব্যক্তিগত অবস্থান ও উৎসাহ – দু’টোকেই সম্মান করা হয়েছে

সর্বশেষ আপডেট:
পাণ্ডুলিপির প্রাথমিক সম্পাদনা শেষে একটা কাঠামো দাঁড়িয়ে গেছে। প্রকাশকের কাছে এই পাণ্ডুলিপি পৌঁছে দেয়া হয়েছে। শনিবার (২৬ জানুয়ারি ২০১৩) প্রকাশকের সাথে বসা হয়েছে, চূড়ান্ত পৃষ্টা বিন্যাসের জন্য। সম্পাদকীয় লেখা হয়েছে ও প্রকাশকের হাতে পৌঁছে দেয়া হয়েছে। প্রচ্ছদের কাজও শেষ। সামান্য কিছু ’ফাইনাল টাচ’ বাকি এখন কেবল। রবিবারের মধ্যে প্রচ্ছদ প্রকাশকের হাতে পৌঁছে দেযা হবে ।

প্রকাশককে অনুরোধ করা হয়েছে ১১ ফেব্রুয়ারির পূর্বে ছাপা ও বাইন্ডিং সমাপ্ত করার জন্য। যদিও এই তাড়াহুড়ায় একটা আশংকা থেকে যায় বই বাঁধাই ঠিক মত হবে কিনা। তবুও যেহেতু কাজ অনেকটাই গুছানো, ফলে ১১ ফেব্রুয়ারিকে টার্গেট ধরা হয়েছে। এই তারিখের অন্য তাৎপর্য হচ্ছে , ব্লগের ২য় বর্ষ উদযাপনের আনন্দের সাথে নগর নাব্যকেও বরণ করে নেয়া।

আগামি আপডেটে যা যা জানা যাবে:
প্রচ্ছদ, সম্ভাব্য মূল্য, পৃষ্ঠা সংখ্যা, সম্পাদক ব্লগারের নাম, প্রকাশকের নাম, স্টল নম্বর ইত্যাদি।

তবে, আগ্রহ (সাসপেন্স) ধরে রাখতে মোড়ক উন্মোচনের পূর্বে নির্বাচিত পোস্ট/ব্লগারের নাম আপাতত প্রকাশ করা হবে না। বই হাতে নিয়ে পৃষ্ঠা উল্টিয়েই তবে জানব। 🙂

আপনারা যারা ফেইসবুক ব্যাবহার করেন তারা “নগর নাব্য” পেইজটিতে এসে আপনার মন্তব্য,পরামর্শ কিংবা অনুভুতি প্রকাশ করুন এবং সাথে পেইজটি লাইক দিতে ভুলবেন না।

ধন্যবাদ সকলকে।