ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

 

ছবিটি দেখে অনেকে হাসি পেতে পারেন। অনেকে মন্তব্য করতে পারেন বিজ্ঞানের আশীর্বাদে এটা তৈরি করা হয়েছে। কিন্তু এটা বাস্তব, আমরা এর আগে দেখেছি মোটরবাইক চালনোর জন্য হেলমেট ব্যবহার করা হয় যাতে দুর্ঘটনা ঘটলেও বড় ধরনের আঘাত মাথায় না লাগে। আবার পুলিশ যখন হরতালে পিকেটারদের সঙ্গে যখন যুদ্ধে লিপ্ত হয় তখন হেলমেট ব্যবহার করে । এ-ও দেখেছি মিডিয়ার কর্মী, যারা মূলত ফটোসাংবাদিক, তারা হেলমেট মাথায় দিয়ে ছবি সংগ্রহ করে। যাতে পিকেটার অথবা পুলিশের বুলেটের আঘাত তার না লাগে।

কিন্তু হরতালের সময় দেখলাম এক মজার দৃশ্য যা দেখে প্রথমে আমি প্রচণ্ড হাসি পেয়েছিল। হাসি পাবার মতো ব্যপার ছিল এটা। একজন টোকাইয়ের মাথায় হেলমেট, হরতাল চলাকালে যাতে পিকেটারদের কোনো আঘাত না লাগে । আবার যদি কখনো ব্যবসায়ী বিশ্বজিতের মতো কোনো ছাত্রলীগের মিছিলের সামনে পড়ে যায় এবং বিরোধীদলের কর্মী হিসাবে বেধড়ক মার খেতে হয় অন্তত যাতে না মরে প্রাণে বাঁচতে পারে তার জন্য এই ব্যবস্থা। কারণ মাথায় আঘাত পেলে মানুষ দ্রুত মারা যায়।

আমি মজা পেলেও ক্যামেরার ম্যাধ্যমে খুব দ্রুত বন্দি করে ফেললাম দৃশ্যটি। অন্তত আমার ফেসবুক অথবা বিভিন্ন ব্লগের বন্ধুরা এই পথ অবলম্বন করতে পারে। কারণ আমরা যারা জীবিকার খোঁজে জঞ্জালপূর্ণ ঢাকা শহরে বাস করি তাদের জীবনে নিরাপত্তা তো আমাদের সরকার মহোদয়রা দিতে পারেন না । নিজেদের আখের গোছাতেই তাদের সময় পার হয়ে যায়।

সেই দিক থেকে টোইয়ের এই টেকনিকটা আমার ভালো লেগেছে। তবে তার আকেটা জিনিস করা দরকার ছিল একটি আইডি কার্ড বানিয়ে কাছে রাখা যে আমি সাধারণ জনগন, আমি কোনো দল করি না । আবার যারা দল করে তাদেরও উচি আইডি কার্ড কাছে রাখা। আমি ছাত্র লীগ, ছাত্র শিবির অথবা ছাত্র দল করি যাতে অজ্ঞাত পরিচয়ে মরে লাশের রাজনীতি করার সুযোগ না পায় আমাদের দেশেরে রাজনীতিবিদরা।

গতকাল আমাদের যোগাগোমেন্ত্রী বলেছেন, আমরা মানুষ রুপি দানবের দেশে বাস করি। আগে থেকে উনি আমাদেরকে সাবধান করে দিয়েছেন এই জন্য উনাকে ধন্যবাদ জানায় ।

দানবের কর্মকাণ্ড সম্পর্কে আমাদের সবার মোটামুটি জানা আছে ওদের মনে কোনো দয়া মায়া নেই ওরা যে কোনো সময় যে কোনো কা- খুব সহজে ঘটাতে পারে। যেমনটি পারলো বিশ্বজিতের বেলাই। এটি ছিল ছোট ছোট দানবের কাণ্ড। এবার বোঝেন বড়-বড় দানবরা আরও কতো কিছু করতে পারবে । আর এই কথা শোনার পর কি আমাদের বসে থাকা উচিৎ হবে? তাই নিজেদের বাঁচানোর জন্য টোকাইয়ের পথটা-ই বেছে নিতে হবে।