ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

সমুদ্রসীমা নিয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে আইনি লড়াইয়ে বাংলাদেশের জয়ের বিষয়ে সরকার, সংসদে মাননীয় বিরোধী দলীয় নেত্রী কর্তৃক সরকারকে ধন্যবাদ দেওয়া ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন সাহেবের বক্তব্য এবং বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেবের বক্তব্য মিলছে না ৷ অর্থাৎ সরকার দেশ বিক্রী করে দিলেও সেটা আমাদের (বিরোধী দল সহ) বুঝতে অনেক সময় লাগবে/লাগছে ৷ আমার মনে হয় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন এবং বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেবদের বিষয়টি নিয়ে ২০০৯ সালের পূর্ব হতেই বিস্তারিত ভাবে স্টাডি করা এবং তথ্য সমুহ মিডিয়াতে প্রকাশ করা উচিৎ ছিল ৷ প্রকৃতপক্ষে এ বিষয়ে বিএনপির কোন পূর্ব পরিকল্পনা ছিল বলে মনে হয় না বরং তারা সুবিধা বুঝে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে কথা বলছেন অর্থাৎ উনারা দেশ বিক্রী হওয়ার পরে চিন্তা করছেন, আমরা কি এধরনের রাজনৈতিকদের উপর আস্তা রাখতে রাখতে পারি নাকি রাখা উচিত ৷ বিএনপির মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরা এখন দেশ বিক্রির দায় কাকে দিবেন মন্ত্রনালয়কে না কি আওয়ামী সরকারকে দেখার অপেক্ষায় রইলাম।