ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

ঢাবির শিক্ষিকা রুমানা’র পাষন্ড স্বামী গতকাল গোয়েন্দা পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে। এটা অবশ্যই পুলিশের সফলতা। এ জন্য গোয়েন্দা পুলিশকে ধন্যবাদ।

এরকম একটা ভন্ড ও নারী নির্যাতন কারী পাষণ্ড যেন আইনের কোন ফাঁকফোকর দিয়ে বার হয়ে না যায়। আর কোন মন্ত্রী বা তাদের কোন অদৃশ্য ছায়া যেন বিচারকে প্রভাবিত না করতে পারে। বিষয়টি একান্তভাবে খোঁজ খবর রাখার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নিকট আবেদন করছি।

আর পাষণ্ডটাকে গ্রেফতার করার জন্য গোয়েন্দা পুলিশকে অসংখ্য ধন্যবাদ। সাথে সাথে টাকার মাহে আসক্ত হয়ে কোন আইনজীবি যেন এই মানুষরূপী জানোয়ারটার জন্য কোর্টে মুভ না করে, এটা আমার দেশবাসীর পক্ষ থেকে বিশেষ অনুরোধ। কারন মানুষের জন্য মানবাধিকার, কোন জানোয়ার বা অমানুষের জন্য কোন মানবিক অধিকার প্রযোজ্য হলে সারা পৃথিবী একদিন অমানুষে ভরে যাবে একজন মানুষও খুঁজে পাওয়া যাবে না।

এরকম একটা ভন্ড ও নারী নির্যাতন কারী পাষণ্ড যেন আইনের কোন ফাঁকফোকর দিয়ে বার হয়ে না যায়। আর কোন মন্ত্রী বা তাদের কোন অদৃশ্য ছায়া যেন বিচারকে প্রভাবিত না করতে পারে। বিষয়টি একান্তভাবে খোঁজ খবর রাখার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নিকট আবেদন করছি।

আর পাষণ্ডটাকে গ্রেফতার করার জন্য গোয়েন্দা পুলিশকে অসংখ্য ধন্যবাদ। সাথে সাথে টাকার মাহে আসক্ত হয়ে কোন আইনজীবি যেন এই মানুষরূপী জানোয়ারটার জন্য কোর্টে মুভ না করে, এটা আমার দেশবাসীর পক্ষ থেকে বিশেষ অনুরোধ। কারন মানুষের জন্য মানবাধিকার, কোন জানোয়ার বা অমানুষের জন্য কোন মানবিক অধিকার প্রযোজ্য হলে সারা পৃথিবী একদিন অমানুষে ভরে যাবে একজন মানুষও খুঁজে পাওয়া যাবে না।