ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

 

খুব কমন একটা বিষয় আজ সকাল থেকে মাথার ভিতর ঘুরপাক খাচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে এর আগে হাজারো মাধ্যমে হাজারো লেখালেখি হয়েছে। তারপরও আজ নিজে কিছু লিখতে বসছি এই জন্যই যে, বিষয়টি আজ আমাকে খুব বেশি করে আলোড়িত করছে বলে। ইন্টারনেটের মায়াজাল এর কারণে আজ আমরা সাড়া পৃথিবী একই সূতায় আবদ্ধ হয়ে আছি। আর হাজারো রংয়ের সূতার মধ্যে ফেইসবুক অন্যতম, সেটা কে ই বা না জানে। ব্যক্তিগত ভাবে আমি আমার ফেইসবুক আইডি’র কথা বলছি। যেখানে অধিকাংশ জনই আমার খুব কাছের জন (ছোট-বড় কাজিন, আংকেল,স্কুল, কলেজ অথবা ইউনিভার্সিটি বন্ধু) অথবা পূর্বপরিচিত। তাই আমার এখানের প্রতিটি activity ই আমার বন্ধু তালিকার সবার নজরে চলে আসবে সেটাইতো স্বাভাবিক। তাই সঠিক মানসিকতা, রুচির পরিচয় দিতে হলে আমাকে এখানে সবার আগে আমার activity সবার কাছে গ্রহণযোগ্য হওয়ার মতই হতে হবে, তাই নয় কি?

যে কারণে কথা গুলো বলা। আজ সকালে ফেইসবুকে ঢোকার পর আমার নিজস্ব প্রয়োজনে আমার এক ইউনিভার্সিটি বান্ধবীর নাম সার্চ দিতে গেলে ঐ নামের আর একটি মেয়েকে আমি খুঁজে পাই যে আমারই দুইজন বন্ধুর ফেইসবুক লিষ্ট এ রয়েছে এবং ওদের পারিবারিক আত্মীয় ও বটে। তো মাঝে মাঝে আমার ঐ দুই বন্ধুর ছবি এবং স্টাটাস এ ঐ মেয়ের কমেন্ট দেখে দেখে মেয়েটির নাম এবং চেহারা আমার পরিচিত হয়ে গেছে। আজ যখন বান্ধবীর খোজ করতে গিয়ে আমি হঠাৎ তাকে পেলাম জানিনা কোন কৌতুহলে আমি মেয়েটির প্রোফাইল এ ঢুকলাম। সত্যি বলিছ তার প্রোফাইল এর ছবি দেখে আমি বিশ্বাসই করতে পারছিলাম না আসলে এটাকি ঐ মেয়েটিই কিনা। সাথে আরো অনেক গুলো পর্ন ছবির পোষ্ট। যা আমাকে রীতিমত অবাক করেছে। আমার অবাক হবার পিছনে একটা কারণ ও রয়েছে। আর সেটা হল মেয়েটি একজন স্কুল শিক্ষক। আর সেটা সে তার স্টাটাস এবং মন্তব্যে খুব জোড়ালো ভাবে বলে (আমি স্কুল শিক্ষক তো, তাই এটা বলা উচিত বলে মনে করছি, অথবা এটা বলা অভ্যাস হয়ে গেছে ইত্যাদি)। তো একজন স্কুল শিক্ষিকার পূর্বের এমন কথাগুলো আমার ভালোই লাগতো বলে আজ এমন ব্যাপার দেখে আমি সত্যিই অবাক না হয়ে পারলাম না। এমন নোংরা কিছু ছবি একজন স্কুল শিক্ষিকা পোষ্ট করার মাধ্যমে যেটা করেছে সেটা শুধু নোংরামিই নয় রীতিমত শিক্ষক সমাজের কাছে সে একটা লজ্জাজনক বস্তু তে পরীনত হবে বলে আমি মনে করি। যিনি তার ছাত্রদের কে দেশ ও জাতির রত্ন হিসাবে গড়ে তুলবেন তার ভিতরে যদি এই নগ্নতা বিরাজ করে, তাহলে সে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে কি উপহার দিবে?

আমি জানি, অনেকেই সুন্দর আর শুভ জিনিস গুলোকে মিসইউজ করে বলেই আমার মত বোকাদের আর এটা ব্যবহার করার সুযোগ থাকেনা। কিছু কিছু মানুষ আছে যারা পর্নোগ্রফিকে সাপোর্ট করে অথবা এটাকে ফ্যাশন বলে মনে করে। কিন্তু সেটা আমাদের সমাজে কতটা গ্রহণযোগ্য? আমরা এটাকে সাপ্রার্ট করিনা বলে চোখ বন্ধ করে রেখে অথবা দেখবনা বলে চোখ ফিরিয়ে নিলে কতটা দ্বায় এড়াতে পারি? আমার মনে হয় চোখ বন্ধ করে রাখা অথবা চোখ ফিরিয়ে নেয়াটার মধ্য দিয়ে পরোক্ষভাবে ঐ পর্নোগ্রাফিকেই সাপোর্ট দেয় হয়। তাই সমাজ তথা নিজের বিবেকের কাছে নিজেকে সুস্থ আর সুন্দর মানসিকতর পরিচয় দিতে হলে যার যার সাধ্যমত এটাকে পরিহার করা উচিত। আর সেই শিক্ষা গড়ে ওঠা উচিত পরিবার থেকেই। পরিবার থেকে সুস্থ আর সুন্দর এর শিক্ষা না পেলে আমরা মুখে মুখে যত বড় বড় কথা বলি না কেন সতি্যকার ভাবে কখনোই বিবেকবান মানুষ হতে পারবো না। আর সমাজ তথা দেশকে ভালো কিছু উপহার দিতে হলে সব কিছুর আগে একজন বিবেকবান মানুষ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হওয়া উচিত। নইলে সামনে আমাকে মানুষ যতই সমীহ অথবা সম্মান করুক না কেন পিছনে গিয়ে ঠিকই কটাক্ষ করবে। তাই সামনে বসে কারো মিথ্যা সম্মান পাওয়ার চেয়ে সত্য আর সুন্দর প্রতিষ্ঠার জন্য বিবেকহীন মানুষদের কে বিবেকবান করার যুদ্ধটা অনেক বেশি মূল্যবান বলে মনে করছি।