ক্যাটেগরিঃ ধর্ম বিষয়ক

তালিমুল কুরআন মহিলা মাদ্রাসার শিক্ষিকার বিরুদ্ধে অভিযোগ, ঠিক সময়মত নামাজ না পরার শাস্তি হিসেবে তিনি ছাত্রীদের দেহে উত্তপ্ত খুন্তির ছ্যাঁকা দেন। তাদের ‘দোযখের আগুন’ সম্পর্কে ধারণা দেয়ার জন্য তিনি এই কাজ করেন।

ঐ মাদ্রাসার ১৪ জন ছাত্রীকে শারিরিক নির্যাতনের অভিযোগে পুলিশ ঐ মাদ্রাসার এক শিক্ষিকাকে আটক করার লক্ষ্যে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। গত ১লা মে এই ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে এলাকার অভিভাবকদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

ঘটনায় আহত এক ছাত্রীর পিতা আব্দুল জলিল ঐ দিনে কদমতলা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ঐ শিক্ষিকার নাম জেসমিন আখতার । ঘটনার পর থেকে জেসমিন আখতার পলাতক রয়েছেন বলে পুলিশ বলছে।

সূত্র: বিবিসি বাংলা, ছবি: এটিএন বাংলা