ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

 

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাস বিভাগ থেকে সদ্য মাস্টার্স পরীক্ষা দেওয়া এক ছাত্রী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। দীর্ঘ সময় রুমের ফ্যানের সাথে ঝুলে থাকলেও হল প্রশাসন কোন ব্যবস্থা না নিলে বান্ধবীরা নিজ উদ্যোগে নামায়। পরে তাকে সাভার এনাম মেডিকেলে নেয়ার পর সে মারা যায়।

জানা যায়, আজ মঙ্গলবার সোয়া একটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের মাস্টার্সের (৩৫তম ব্যাচ) ছাত্রী মারজিয়া জান্নাত সুমী হলের নিজ রুমের ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। তিনি শহীদ জাহানারা ইমাম হলের ৩১৩ নং কক্ষের আবাসিক ছাত্রী ছিলেন। মারজিয়া জান্নাত সুমী অনার্সে (চুড়ান্ত পরীক্ষা) প্রথম স্থান অর্জন করেন এবং গত ২রা আগষ্ট মাস্টার্স পরীক্ষাও শেষ করেছেন। তবে কেন আত্মহত্যা করেছেন এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানা যায়নি। সহপাঠিরা জানান এক শিক্ষকের সাথে সম্পর্কের জের ধরে বিয়ে না করায় ও অত্মহত্যা করে।

এদিকে হলের শিক্ষার্থীদের চোখের সামনে সুমি ১৫ মিনিট ঝুলে থাকলেও হল প্রশাসন কোন প্রকার ব্যবস্থা না নেওয়া হলের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে হল প্রশাসনের তুমুল বাকবিতন্ডা হয়। পরে হলের শিক্ষার্থীরা তাকে নামিয়ে মেডিকেলে পাঠালে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে তার এক সহপাঠি কান্নাজড়িত অবস্থায় বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, আমরা যখন হল প্রশাসনকে বলেছিলাম সুমিকে নামাতে তখন নামালে ও বেচে যেত। হল প্রশাসনের গাফলতির কারনে ওকে হারাতে হল। এর বিচার চাই আমরা।