ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

১২ মার্চ! দেশের আনাচে-কানাচে আলোচনার প্রধান বিষয়, যাকে বলে একেবারে হট কেক । বিভিন্ন ব্লগে লেখালেখির ধুম পড়েছে । কেও লিখে :গণতন্ত্রের নামে কী হচ্ছে এসব? কেওবা: ‘সবে মাত্র দুটি মৌলিক অধিকারের উপর হাত’ অথবা ‘শুধুই ভোগান্তি ‘ কিংবা ‘সরকারের এ কেমন হীনমন্যতা!!! ‘ নামে বহু পোস্ট । আমি তাদের বলি ‘১২ মার্চ’ কী আমাদের এই অভাগা জাতির জন্য নতুন কিছু ? নাকি খেলোয়াড় আর রঙ্গ-মঞ্চের পরিবর্তনে আপনারা সব ভুলে যাচ্ছেন?

না! আমাদের অভাগা এই জাতির জন্য ‘১২ মার্চ’ নতুন কিছু না , না ‘সাগর-রুনী হত্যাকাণ্ড’, কিংবা ‘শেয়ার বাজার কেলেঙ্কারি ‘ অথবা ‘পদ্মা সেতু দুর্নীতি ‘ আমাদের অভাগা জাতির জন্য বাবর-সাহারা জোকারদের আবির্ভাবও নতুন না , না খালেদার মায়া কান্না, না হাসিনার তসবি হাতে রঙ্গ-মঞ্চে প্রবেশ, কিংবা দেশ বিরোধী শক্তির লম্ফঝম্ফ ,অথবা বেহায়া এরশাদের পলটিবাজি ।

তারেক,জয়, মওদুদ,হারিছ, মামুন, আবুল মাল,কামাল মজুমদার, মায়া,হাজারী, হাজী সেলিম, মকবুল, শামীম ওসমান সহ অজস্র নির্লজ্জ নপুংসকদের রঙ্গ-মঞ্চে বিভিন্ন বেশে আগমনও নতুন কিছু নয় ।
তারপরও আমরা এদের নিয়ে লিখি , সমলোচনা করি , গালাগালি করি , এদের গুষ্টি উদ্ধার করি , এদের দুর্নীতির তথ্য প্রকাশ করি , আরও কত কী যে করি তার হিসেব নেই।
আসলে আমরা যা করি তা হচ্ছে ময়লা নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করে সস্তা আনন্দ পেতে চাই ।

এসকল রাজনীতিবিদ নামক গুবরে পোকাদের নিয়ে চিন্তা করে সময় নষ্ট না করে আমাদের উচিত দেশটা যেহেতু আমাদের ,তাই দেশটাকে সাজানোর জন্য আমাদেরকেই এগিয়ে আসা।
ঠিক এই কথাগুলোই তুলে ধরেছিলাম এই ব্লগের একজন চমৎকার, সমাজের বিভিন্ন অসংগতির বিরোধী লেখক জাহেদ-উর-রহমান এর গুড নিউজ ইজ ‘ব্যাড নিউজ’ পোস্টের একটি মন্তব্যে। সেই মন্তব্যটি এখানে আবার তুলে ধরলাম:

“জাহেদ ভাই, আপনার প্রায় প্রত্যেকটা লেখাই আমার পড়া, দারুন ভক্ত আমি আপনার। আপনার সব লেখা পড়ে আমার সল্প বুদ্ধিতে যেটা বুঝি, আপনি ঘুনে ধরা এই সমাজের পচন ধরা সব সমাজ বেবস্তার বিরুদ্ধে কলম-যুদ্ধ শুরু করেছেন। জাহেদ ভাই, ময়লা নাড়াচাড়া করলে দুর্গন্ধ ছাড়া ভাল কিছু পাওয়া যায় না বলেই আমি জানি, কিন্তু আমাদের সমাজে ঐ কাজটাই বেশি হচ্ছে , যে কারণে সমাজের ওই কীটগুলো(যারা সমাজটার অবস্থা এতটা খারাপ করেছে ) কিন্তু কোনও কিছুকেই ভয় পায়না, কারণ তারা জানে যারা তাদের বিরুদ্ধে বলছে অথবা লিখছে তারা শুধু মাত্র ঐ দুটি কাজের(বলা এবং লিখা ) ভিতরই সীমাবদ্ধ এবং তারা এও জানে যারা তাদের বিরুদ্ধে বলছে অথবা লিখছে তারা সুন্দর একটি সমাজ তৈরির কোনও দিকনির্দেশনা মানুষদের দেখাতে পারেনি। জাহেদ ভাই, আপনি আপনার সবগুলো লেখাতেই সমাজের অনেক অসংগতির চমৎকার প্রকাশ করেছেন কিন্তু আপনি নিজেও কোনও সমাধান দেখাননি। তবে আপনি বারবার সমাজ এর পচেন এ যারা কাজ করছে তাদের বর্জন এর কথা বলেছেন কিন্তু তাদের বর্জন এর পরে আমরা কিভাবে এই সমাজটাকে নতুন ভাবে সাজাব তার কিন্তু কোনও দিকনির্দেশনা দেননি । আমার মতে আমাদের দেশের মানুষ অনেক ভাল কথা শুনেছে এবার মনে হয় তাদের জন্য কিছু করে এই সমাজ বেবসটাকে নতুন ভাবে সাজানো প্রয়োজন”