ক্যাটেগরিঃ প্রকৃতি-পরিবেশ

 

বাংলার নয়নাভিরাম প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য হেমন্তের আগমন| হেমন্তের আগমনের আগে আসে বর্ষা আর শরৎ। হিম থেকে এসেছে হেমন্ত। তাই হেমন্তকে বলা হয় শীতের পূর্বাভাস। হেমন্তের শিশির ঝরা নিশিতে ফোটে গন্ধরাজ, মল্লিকা, শিউলি আর কামিনী। হেমন্তেই দীঘির জলে, বিলে, ঝিলে ফোটে কত না রঙের পদ্ম। এ দিকে খেত-খামারে রাশি রাশি ভারা ভারা সোনার ধান উঠতে থাকে। ঘরে চলে নবান্ন উৎসব। আর তারই সাথে মনে গাঁথা কবি সুফিয়া কামালের ছড়া-কবিতা “হেমন্ত”,

সবুজ পাতার খামের ভেতর
হলুদ গাঁদা চিঠি লেখে
কোন্ পাথারের ওপার থেকে
আনল ডেকে হেমন্তকে?
আনল ডেকে মটরশুঁটি,
খেসারি আর কলাই ফুলে
আনল ডেকে কুয়াশাকে
সাঁঝ সকালে নদীর কূলে।
সকাল বেলায় শিশির ভেজা
ঘাসের ওপর চলতে গিয়ে
হাল্কা মধুর শীতের ছোঁয়ায়
শরীর ওঠে শিরশিরিয়ে।
আরও এল সাথে সাথে
নুতন গাছের খেজুর রসে
লোভ দেখিয়ে মিষ্টি পিঠা
মিষ্টি রোদে খেতে বসে।
হেমন্ত তার শিশির ভেজা
আঁচল তলে শিউলি বোঁটায়
চুপে চুপে রং মাখাল
আকাশ থেকে ফোঁটায় ফোঁটায়।

মুহুর্তে ভেসে উঠলো স্মৃতির পটে উঠানে ছেলেবেলাকার প্রভাতের শিশির সিক্ত শিউলি ফুল কুড়ানো একান্নবর্তী পরিবারের ভাই-বোনেরা মিলে। আহা! আফসোস। আফসোস। ভীষণভাবে মিস করি সেই স্বর্ণালী দিনগুলো।

পৃথিবীর আরেক প্রান্তে ইউরোপে হেমন্তের শুরু ১লা সেপ্টেম্বর থেকে। বেশ খানিকটা সময় ধরে লিখতে বসে মাথাটা কেমন যেন জ্যাম হয়ে গেল। একটু ফ্রেশ হতে ব্যালকনে গেলাম। কনকনে মৃদু ঠান্ডা হওয়া বইছে। এ সময়টায় তাপমাত্রা মাঝারি (+১ সে.- +১০ সে.) থাকে। এ সময় টিপটিপ বৃষ্টি হয়। আমাদের দেশের মতো সারাদিন ঝর ঝর করে ঝরে না। খুবই থেমে থেমে এবং অনিয়মিত।

এখানে হেমন্তকে বলা হয় বৈচিত্রময় রঙের ঋতু। হেমন্তকাল হলো পাতা ঝরার দিন। ব্ল্যাক ফরেস্টের নানা ধরনের ঝাউ গাছগুলো ছাড়া আর সব গাছেরই পাতা এ সময় ঝরে যেতে শুরু করে এবং শীতের আগমনের আগেই সব বৃক্ষই ন্যাড়া হয়ে যায়। তবে এখনো মেপেল লিফ সহ প্রায় সব গাছের পাতাগুলো হলদে-তামাটে বর্ণ ধারণ করে বহাল তবিয়তে আছে কিছু গাছের পাতা ব্যতিত।

বিকেলবেলা অফিস থেকে বের হয়ে পার্কিং অব্দি পৌছুতে সামান্য হাটা পথ। হাঁটতে হাঁটতে শীতের একটা হিমেল আমেজ পাওয়া যায়। ভালবাসার আগে যেমন ভাললাগা তেমনি শীতের আগের প্রায়শীতকে আমার হেমন্ত মনে হয়। সবাইকে হেমন্তের শুভেচ্ছা। সবার জন্য রইলো নতুন ধানের ঘ্রাণ।

হেমন্তের বার্চ ট্রি

হেমন্তের ম্যাগপাই

গাঢ় নীল লোবেলিয়া

* উপরের চিত্রগুলো অন্তর্জাল থেকে কাট টু কাট