ক্যাটেগরিঃ মুক্তমঞ্চ

 

গল্প নেবে গল্প…হাতির গল্প.. ঘোড়ার গল্প…শিয়ালের গল্প…হরিণ আছে…হরিণ…কিংবা মাছরাঙা …নেবে…

আমার ছোট্ট মেয়ে দূর্রে ফেরি করে গল্পগুলো। যা কিছু পায় মাথায় নিয়ে হাঁক দেয়- গল্প ফেরি করে। আমি বলি বাবা! মানুষ কি গল্প কেনে? গল্প তো শুনে। সে তার তোয়াক্কা করে না, সে ফেরি করতে ভালোবাসে। গল্পের ফেরি করে। সে তার ভালোবাসা ফেরি করে।

এ্যাইটুকু মেয়ে জেনে গেছে আজ কারো শুনবার ফুসরত নেই। সবাই ফেরি করে ব্যাক্তিগত সুখ-দুখ, ফেরি করে আনন্দ-বেদনা। থরে থরে সাজিয়ে রাখে ব্যাক্তিগত দুখবিলাস । ড্রয়িং রুমের শোক্যাসে থরে থরে দুখুগুলো আটকে থাকে মেট্রোপলিটন হৃদয়ের।

আমাদের ছোট্ট নুসরাত বিতর্কের যে কোনো পর্বেই , কোনো না কোনো গল্প জুড়ে দেয়- যখন তখন । তার ঠোঁট জোড়া মনে হয় তৃষার্ত মানুষের চিৎকার। গল্পহীন মানুষের ফাঁকা বেদনা যেন নুসরাতের ঠোঠচুয়ে আমাদের উসকে দিচেছ- মধ্যবিত্ত ফুরালো- তার কোনো রস নেই , ফাঁকা খোলসে চলছে তার বুদ বুদ খেলা। কোথায় আমাদের আষাঢ়ে গল্প? অলস মধ্যাহ্নের খুনসুটি ? যাপনের চুটকী কিংবা দমফাঁটা হাঁসির গল্প? মধ্যবিত্ত জীবনে কত ছোঁয়া ছিল- যাপনের ভুগোলে! হায়! আমাদের গল্পগুলো হারালো!!

আমাদের সুমাইয়াকে কিছু বলতে বললেই কাঁচুমাচু হয়ে বনরুয়ের মত কুন্ডলী পাকায়। ওর পিটপিটে চোখ দুটো মারবেল পাথরের মত খেলা করে তালুতে। আমি হাসি ! এ্যাই মেয়ে তোরা কাদের উত্তরসুরী? একাত্তরের বীরঙ্গনা কিংবা তারও আগে রোকেয়া-ফয়জুন্নেসা-প্রীতিলতা। কই পল্টনের তুফান তোলা বচন? কিংবা রেসকোর্সের নতুন কবিতা আজকের সংগ্রাম…

আমাদের গল্প এখন থেমে গেছে যাপনের ফর্দে। শাকান্নের তীব্রতায় মধ্যবিত্ত হারিয়ে যায় নিম্মবিত্তে, নিম্মবিত্ত হারিয়ে যায় বিত্তহীনতায়। মধ্যবিত্তমন থেমে যায় , নাগরিক দৌড়ে- থেমে থেমে যায়। বিত্তের বৈভব নিয়ে কেউ কেউ হেঁটে হেঁটে চলি আলো আধাঁরী উঞ্চতায়। বার্গারের মাংশালো গন্ধে মজে থাকি মাংশাষী হয়ে। মাংসই নম:স্ব , মাংসই জীবন।

নিয়ত ফুরায় আমাদের গল্প- মাংশাষী হয়ে দেহময়হয়ে উঠে জীবন । আমাদের বন্ধুতা ছুঁয়ে ছুঁয়ে যায় দেহে । দেহের অধিক যা কিছু- পায়না এখন নাগরিক মুগ্ধতা। হৃদয়কে সাথে নিয়ে- ভালোলাগা বোধ গুলো গল্পের প্লট হয়ে লতিয়ে ওঠে না সুনসান দুপুরে । অলস বিকেলে আমরা আঁকিনা আর সকালের সুখবোধ।গল্প আর হয় না এখন ।

নগর যাপনের গালগল্প শুধু মুঠোফোনে । মুঠোফোনের সীমাবদ্ধ ক্যানভাসে ভালোবাসার গল্প এখন আর তাজমহল বানায় না ! হয় না এখন আর কোনো শালিমারবাগ। রাতজাগা গল্পগুলো হয়ে যায় পত্রিকার সংবাদ। নিহত কিংবা আহত মমতাজ।

এ্যাই গল্প নেবে গল্প…হাতির গল্প…ঘোড়ার গল্প…শিয়ালের গল্প…হরিণ কিংবা মাছরাঙার…

দূর্রের সুর তোলা ফেরিগান এখন খু-উ-ব নির্মম মনে হয় , শুধু গল্পই মনে হয়…