ক্যাটেগরিঃ ভ্রমণ

বাংলাদেশে ভ্রমনপিপাসু মানুষের পছন্দের পর্যটন স্পটগুলোর মধ্যে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত অন্যতম জনপ্রিয়। প্রকৃতির অসাধারন বেলাভুমি এই সমুদ্র সৈকতে প্রতিদিন যেন হাজার মানুষের মিলনমেলা। পর্যটকেরা স্নান করে বিশাল বিশাল ঢেউ আছড়ে পড়ে, মনে হয় যেন জীবনের সব ক্লান্তি ধুয়েমুছে গেল। বীচের একদিকে যেমন ঝাউগাছের পাতায় পাতায় শো শো বাতাশের শব্দ অন্যদিকে কপোত কপোতিরা পাথরের ফাঁকে ফাঁকে ভালবাসার ফুল ফোটানোর অপেক্ষায়…। আধো আলোছায়া গোধুলির মায়াতে সাগরের ঢেউ যেন বয়ে যায় আপন মহিমায়।

দুরদুরান্ত থেকে আসা হাজারো ভ্রমন পিপাসুরা যতটানা উৎফুল্ল তারচেয়ে বেশী আতঙ্কিত। এখানে পর্যটকদের রাত্রিযাপনের জন্য কোন ব্যাবস্থা নেই, যার ফলে দূর থেকে আসা পর্যটকদের বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়।প্রকাশ্যে ঘটছে মাদক ব্যবসা, ছিনতাই, বখাটদের উৎপাত এসব কারনে ফ্যামিলি নিয়ে মাঝে মাঝে বিব্রত অবস্থায় পরতে হয়, মোস্তফা কামাল আতাতুক এভেনিউ থেকে সি-বীচ পযর্ন্ত প্রায় ৪ কিলোমিটার রাস্তায় কোন ল্যাম্প পোস্ট না থাকায় সূযাস্তের সাথে সাথে অন্ধকার নেমে আসে এ সুযোগে দূস্কৃত কারীরা পথচারিদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে মূল্যবান জিনিসপত্র। এমন কী নিরাপত্তায় নিয়োজিত কিছু অসাধু পুলিশ কমর্কতা ছেলে মেয়েদেরকে ধরে ভিবিন্ন ধরনে ভয় দেখিয়ে তাদের কাছথেকে মোবাইল, টাকা পয়সা হাতিয়ে নিচ্ছে।

চুয়েট থেকে বান্ধবিকে নিয়ে ঘুরতে আসা একজনের সাথে কথা বলে জানা যায় পুলিশ রাস্তায় তাদের সিএজি থামিয়ে পরিচয় জিঙ্ঘেস করে তাদের বাবা মায়ের সাথে যোগাযোগ করতে চায়, ঐ ছাত্র ছাত্রী মানসন্মানের বয়ে অনিহা প্রকাশকরলে তাদের দুজনের মোবাইল এবং ১৭৫০ টাকা নিয়ে যায়।