ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

যে যাহাই বলুন না কে, আমাদের মেয়েরা আসলে শালীন এবং নিজের নিরাপত্তা নিয়ে স্বচেতন । তাহলে প্রশ্ন আসে নানা ভাবে বিপদগ্রস্থ হচ্ছে কেন? এর উত্তর একটি, আমাদের দেশে এমন কিছু লোক আছেন যারা নিজেকে সমাজের সর্বোচ্চ শ্রেনী বলে দাবী করেন এবং প্রচার মাধ্যমেও তাদেরকে সমাজের উচ্চ শ্রেনীর মানুষ হিসাবে প্রচার করে, গোপন রাখেন ঐসব লোকের কুকীর্তিকে। অতীতের অনেক ঘটনা বদাই দিলাম আজকের সংবাদপত্রে প্রকাশিত সংবাদের কথাই বলছি।

হলমার্ক গ্রুপের এমডি তানভীরকে অশিক্ষিত মূর্খ বলা যাবেনা তিনি একটি গ্রুপ অব কোম্পানীর এমডি। প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়েছে তিনি গার্মেন্টস এর সুদর্শনা তরুণী নিয়ে আনন্দ ফুর্তি করতেন, RAB তার মধুকূঞ্জে তিন তরুনীকে পেয়ে জিজ্ঞাসা বাদের পর ছেড়ে দিয়েছে কারণ RAB এর কাছে এই তরুনীরা নিন্ম মানের মনে হয়েছে, উন্নত মানের হলে ধরে রাখতেন কিনা জানিনা। সংবাদে আরও বলা হয়েছে তানভীরের মধুকূঞ্জে যাদের যাতায়াত তারা হচ্ছেন পুলিশে উর্ধ্বতন কর্ম কর্তা, রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী, ব্যঙ্কার সহ সমাজের উচ্চতর শ্রেনীর সুবিধা ভোগী লোকেরা, অথচ গনমাধ্যম তাদের নাম প্রকাশ করল না। তার মানে কি! এই লোক গুলি নিজেদেরকে উচ্চতর শ্রেনীর দাবী করলেও তারা আসলে কত নিন্ম শ্রেনীর লোক তাহা প্রকাশ হয়ে যাবে তাই গনমাধ্যম তাদের নাম পরিচয় প্রকাশ করে নাই।

গনমাধ্যম সহ আরও অনেকে পরিকল্পিত ভাবে লোভ লালসা দিয়ে আমাদের তরুনীদের কে যেইভাবে প্রদর্শন করে অর্থ উপার্জনের প্রাণকেন্দ্র বা প্রতিষ্ঠান বানিয়েছেন তরুনীরা সেখানে কি নিরাপদ? আমাদের কথাকথিত সাংস্কৃতিক জগতে কোন্ তরুনীটি সমালোচনার উর্ধ্বে বলুন তো? তরুনীরাও যেহেতু ঐসব পাপিষ্টদের কারণে নিজেদের স্বর্বস্ব হারিয়েছে সেহেতু সেই তরুনীরাও এক পর্যায়ে বেপরোয়া হয়ে যায়, যত্রতত্র যেমন ইচ্ছা তেমন করার সাহস করছে, অথচ এরা নিজের খুশিতে এমন হয় নাই বরং তাদেরকে এমন বানানো হয়েছে। এখন, কোনো বাবা মা যদি তার মেয়েকে ঐসব শয়তানের হাত থেকে রক্ষার জন্য মেয়েকে ঘর বন্দী করতে বাধ্য হয় তাহলে দোষ কোথায়? নারীর নারীত্ব এবং সমাজ ধ্বংসকারী কে? নারীর উন্নয়ন, অগ্রগতি, শিক্ষা, স্বাধীনতায় মূলত বাঁধা প্রদানকারী কে? ছাত্রীরা শিক্ষক থেকে নিরাপদ আছে কি? অফিসে নারী কর্মচারীরা বসের কাছে নিরাপদ আছেন কি? বলুন তো নারীরা কোথায় নিরাপত্তাহীন? উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে নারীরা যেখানেই যায় সেখানেই তাদেরকে স্বর্বস্ব হারাতে হয় তাহলে নারী উন্নয়নে বাঁধা প্রদানকারী কে?

প্রত্যেক বাবা মা চায়, তাদের মেয়ে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হউক কিন্তু উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হতে গিয়ে যদি মেয়েটিই হারিয়ে যায়, মেয়েটি বাজারের পণ্য হয়ে যায়, মেয়েটি অন্যের কথাকথিত উচ্চতর সমাজের খেলনার পুতুল হয়ে যায়? তাহলে কোনো আদর্শবান বাবা মা তাদের মেয়ের সেই উচ্চ শিক্ষার প্রয়োজন আছে মনে করবে কি? যারা অন্যের কিশোরী তরুনী নিয়ে আমোদ ফূর্তি করে তাদের কাছে আমার জিজ্ঞাসা যে, তাদের মেয়েরাও অন্য কারও মনোরঞ্জন, বিনোদনী পণ্য হয় তখন তারা আপত্তি করবে কিনা। তানভীরের মধূকূঞ্জে যারা যাতায়াত করতেন তাদের মেয়েরা যদি অন্য কোনো মধুকূঞ্জের, মনোরঞ্জন বিনোদনী পণ্য হয় তখন তারা নিজেদেরকে কি পরিচয় দিবেন।