ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

র‌্যাব প্রসঙ্গে মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য থেকে একটা জিনিষ পরিস্কার বোঝা গেলো যে, র‌্যাবের খারাপ বৈশিষ্ট্য তাহলে কিছু আছে,যা তার(মন্ত্রীর) ভাষায় ‘হুটহাট বা রাতারাতি পালটে ফেলার আশা করা ঠিক নয়’। ভাল কথা। কিন্ত মাননীয় মন্ত্রী-আপনাদের অর্ধেক অর্থাৎ আড়াই বছর পার হয়ে গেলো। এই ”হুটহাট বা রাতারাতি”র শেষ হবে কবে?

এর আগেও মাননীয় এই পররাষ্ট্র মন্ত্রী র‌্যাবের ক্রস ফায়ার প্রসঙ্গে একদিন এক মন্তব্যে বলেছিলেন-ক্রস ফায়ার বন্ধে সময় লাগবে,রাতারাতি তা বন্ধ করা যাবেনা।এই ‘রাতারাতি’ র শেষ এখনো হলোনা। জানিনা আর কত জন ক্রসফায়ার হওয়ার পর,আর কত লিমন পঙ্গু হওয়ার পর তাদের এই ‘সময়ের’ শেষ হবে।

লিমন প্রসঙ্গেও মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী অপ্রাসঙ্গিক কিছুর অবতারণা করে আসল কথা পাশ কাটিয়ে গিয়েছেন। বলেছেন এই সরকারের আমলে নাকি রাষ্ট্রীয় পৃষ্টপোষকতা বিচার বহির্ভূত কোন হত্যাকান্ড হচ্ছেনা (?)।হয়েছে কেবল বিগত আমলে।মাননীয় মন্ত্রী-নিজেদের চেহারাটা আয়নায় না দেখে,কেবল মাত্র বিগতদের দোষ খুঁজে বেড়ানোর এই পঁচা ভাত,এদেশের মানষের পেটে আর হজম হবেনা। মানুষ সবই দেখছে এবং হিসাব রাখছে।মনে রাখা দরকার এই দিনই দিন নয়-আরো দিন সামনে আছে।সময়ে মানুষ কিন্ত ঠিক ঠিকই এর জবাব দিবে।