ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

 

পরিবেশ ও বন প্রতিমন্ত্রী হাছান মাহমুদ,তেল-গ্যাস জাতীয় কমিটিকে তীব্র ভাষায় আক্রমন করে, প্রশ্ন রাখেন, ‘কীভাবে তারা জাতীয় কমিটি? কে তাদের রায় দিয়েছে এ জাতীয় কমিটি করতে? কিছু “ টোকাই” নিয়ে গঠিত এ কমিটি কীভাবে জাতীয় কমিটি হয়?’ হাছান মাহমুদ ব্যঙ্গ করে বলেন, ‘কোথাকার কোন মনু মুহাম্মদ, আনু মুহাম্মদ? তাঁকে জাতীয় কমিটি গঠন করার ম্যান্ডেট কে দিয়েছে? উনি অর্থনীতির অধ্যাপক, তেল-গ্যাসের কী বোঝেন?’

যে কোন কিছু নিয়ে ভিন্নমত,বিতর্ক এবং ক্ষেত্র বিশেষে ভুল বোঝাবুঝিও থাকতেই পারে।কিন্ত তাই বলে, “তেল-গ্যাস-বিদ্যুৎ” নিয়ে দেশের স্বার্থ রক্ষার্থে যারা কথা বলে আসছেন,তাদেরকে “টোকাই (?)” অধ্যাপক আনু মহাম্মদ এর মতো একজন শ্রদ্ধেয় জনকে “কোথাকার কোন মনু মহাম্মদ (?)”,এবং “উনি অর্থনীতির অধ্যাপক,তেল-গ্যাসের কি বোঝেন?”- এসব কি ভাষা ব্যবহার করলেন প্রতিমন্ত্রী ডঃ হাছান মাহমুদ!! এতে করে
‘আনু মহাম্মদ কে নয়-খাটো করেছেন তিনি (হাছান মাহমুদ) নিজেকেই।কেননা অধ্যাপক আনু মহাম্মদ যে কি,“টোকাই না কোথাকার কোন মনু মহাম্মদ” তা দেশের মানুষ খুব ভালো করেই জানে।

তবে শেখ হাসিনার পছন্দে (আওয়ামীলীগের পছন্দে নয়) প্রতি মন্ত্রী হওয়ার আগে এবং যখন তিনি আর প্রতি মন্ত্রী থাকবেন না তখন, দেশের মানুষ জনাব হাছান মাহমুদকে “কোথাকার কোন হাছান মাহমুদ-টাহমুদ” বলেই জানতো এবং জানবে। বিএনপির প্রয়াত মন্ত্রী সাইফুর রহমান,আমাদের মুক্তিযুদ্ধকালীন প্রবাসী সরকারের রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলামকে একদা ব্যঙ্গ করে বলেছিলেন “কোথাকার কোন নজরুল”।এতে করে সৈয়দ নজরুলের সন্মান হানি একটুও হয় নাই ,বরং আমৃত্যু তাকেই (সাইফুর রহমানকেই) ধিকৃত হতে হয়েছে,দেশের মানুষের কাছে।

আসলে সন্মান পেতে হলে অপরকে সন্মান দিতে হয়,সন্মানিতদের যথাযথ সন্মান জানাতে হয়-এই সত্য কথাটি বোধ হয় আওয়ামীলীগের অনেকেই এমনকি শীর্ষ কেউ কেউ ও অনেক সময়েই স্মরণে রাখতে পারেন না।

ভাবতে অবাক লাগে,হাছান মাহমুদ নিজে একজন উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত মানুষ। তার নামের আগে একটি “ডঃ” অভিধা আছে। তার মতো একজন কি করে,আনু মহাম্মদের মতো একজন অধ্যাপক এবং বরণীয় ব্যক্তিত্বকে প্রসঙ্গে এমন অশালীন ও নিম্ন রুচির ভাষা ব্যবহার করলেন!!

কেবল মাত্র শেখ হাসিনার পছন্দে নেতা হয়ে যাওয়া,এই হাছান মাহমুদদের জানার কথা নয়,যে তাদের ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ করা এই “টোকাই এবং মনু মহাম্মদ”দের সংগ্রাম-আন্দোলনের কারনেই,বিগত জোট আমলে আমাদের গ্যাস-কয়লা সম্পদ,বিদেশের হাতে তুলে দেয়ার ভয়ংকর এক তৎপরতা প্রতিহত করা সম্ভব হয়েছিলো।তখন এই “টোকাই-মনু মহাম্মদ” রা এবং তদের সকল সংগ্রাম-আন্দোলন ছিলো হাসান মাহমুদদের দল আওয়ামীলীগের খুব পছন্দের। সে কথা তারা ভুলে গেলেও দেশের মানুষ কিন্ত ভুলে যায় নাই।