ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

গতকালের প্রথম আলো’র একটি খবর।শিরোনাম-“কলেজ অধ্যক্ষকে চড় মারলেন সাংসদ!”। একজন কলেজ অধ্যক্ষ। ক্ষমতাহীন সৌম্য সুন্দর একজন মানূষ। আলোকিত মানূষের কাছে অতি উচ্চ সম্মানের একজন মানূষ। আর না মানলে চড় তাকে যে কেউ মারতেই পারে। ছাত্র নেতা পারে,যুব নেতা পারে,থানা নেতা পারে।এমনকি ইউনিয়ন-গ্রাম পর্যায়ের আঁতি-পাতি নেতারাও পারে।কি করার আছে তার?এ চড় তো মেরেছে একজন মাননীয় সংসদ সদস্য!এক অর্থে এ তার সৌভাগ্যই বলা যায়। সাংসদ না হয়ে,সাংসদের চেলাচামুণ্ডা, আঁতি-পাতি নেতা যে কেউ মারলেই বা কি করার ছিলো সেই কলেজ অধ্যক্ষের?দেশের নানান জায়গায় সাংসদ-নেতা এমনকি আঁতি-পাতিরা-অধ্যক্ষ, স্কুল-কলেজ শিক্ষক,সাংবাদিক,ডাক্তার-ইঞ্জিনিয়ার,সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারি সহ এমন অনেককে,চড়-থাপ্পর,কিল-ঘুষি,লাথি-আছার মারছেও তো।যা পত্রিকার পাতায় প্রায়ই দেখা যায়। সাংবাদিক এবং সরকারিদের মারলে তবু কিছুটা ঝুঁকি থাকে।কিন্ত শিক্ষক-অধ্যাপক-অধ্যক্ষ সে তো একেবারে গরু-ছাগলের মতো।

আচ্ছা একজন অধ্যক্ষ হতে কি যোগ্যতা লাগে? আমরা,যত অবজ্ঞা-অবহেলাই করিনা কেন,আমরা যে কেউ কি একজন অধ্যক্ষ হতে পারবো?কিংবা একজন অধ্যাপক? অনেকেই পারবো না।সূর্য পূর্ব দিকে উঠলেও না।আর একজন সাংসদ?মার্কা বিশেষে নমিনেশন পেলেই হওয়া যাবে।আর সে নমিনেশনের জন্য ও এক ব্যাক্তির মর্জি ফরমাইতে পারলেই চলবে। তারপর এইট-নাইন পাশের,বাবর-জন্টু-লাল্টু হলেও,নেকনজর পেলে মন্ত্রী-টন্ত্রীও হওয়া যাবে।এরপর অধ্যক্ষ-অধ্যাপকদের চড় মারা গেলেও,অধ্যক্ষ-অধ্যাপক কোনদিন হওয়া যাবেনা,দুনিয়া উলটে গেলেও না।এরা কি তা বুঝে?না কি বুঝবে?নাহ। প্রাণী জগতের অনেক প্রাণীর মতো সে উচ্চতার এন্টিনা এদের নাই।এদের অনেক নেতাদের ও নাই।অনেকের থাকলেও অশিক্ষিত-কম শিক্ষিতদের তৈলমর্দন তা অচল হয়ে গেছে।অন্যথায় একজন কলেজ অধ্যক্ষকে একজন সাংসদ চড় মারে কি করে?কোন মানুষ কি তা পারে!! আর কোন মানুষ কি তা শুনেও ভাবলেষ-প্রতিক্রিয়াহীন থাকতে পারে!!

আমি এক সময়ে কলেজে পড়াতাম। রাজনীতিতে থাকলে,চড় মারা এই সাংসদের মতো,মাননীয় একজন হয়তো বা থাকলে থাকতেও পারতাম। কোন অধ্যক্ষকে চড় মারতাম কি না,তা জানিনা তবে এক সময়ে কলেজে পড়াতাম বিধায়, ঠাকুরগাঁয়ের সেই কলেজ অধ্যক্ষকে মারা,সাংসদ হাফিজের ‘চড়’ যেন আমার দুই গালে চটাং-চটাং পড়ছে বার বার,অনেকবার।