ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

আওয়ামীলীগের সিনিয়র নেতা মোঃ নাসিম গতকাল(২৩/৯/১১),বিএনপি-জামায়াত চক্রের ২২/৯/১১ তারিখের হরতাল প্রসঙ্গে,তার এক মন্তব্যে বলেন-জাতিসংঘে বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার পাওয়া পুরস্কারকে ম্লান করার জন্যই নাকি বিএনপি-জামায়াত চক্রের এই হরতাল।হরতাল প্রসঙ্গে,পক্ষে-বিপক্ষে,দুই দলের নেতা ও প্রত্যক্ষ-পরোক্ষ সমর্থক একদল টকশো তারকাদের মনগড়া এবং যার যার মতো করে রং-চং লাগানো ও চর্বিতচর্বন মার্কা অনেক কথাই আমরা শুনেছি। কিন্ত জনাব নাসিমের মন্তব্যটি আমার কাছে অবিনভ এবং হাস্যকর মনে হয়েছে।

শেখ হাসিনা বা খালেদা জিয়া কোথায় কি পুরস্কার পেলেন কি পেলেননা,তাতে এদেশের মানূষের কিছুই আসে যায়না।এর আগেও শেখ হাসিনা দেশের বাইরে গিয়ে একটার পর একটা করে অনেক বড় বড় ডিগ্রী পেয়েছেন।তাতেও দেশের মানূষের কোন কিছুই হয়নি,শেখ হাসিনার সন্মানো বোধ হয় একটুও বাড়েনি।মানূষের কাছে দেশের বাস্তবতাটাই মূখ্য-শেখ হাসিনা বা খালেদা জিয়ার পুরস্কার পাওয়া বা ডিগ্রী নয়। বিএনপি-জামায়াত চক্রের এই হরতাল নিয়ে অনেক কিছুই বলার আছে,অনেক প্রস্ন করার আছে,কিন্ত “শেখ হাসিনার পাওয়া পুরস্কারকে ম্লান করার জন্যই এই হরতাল” এমন আবিস্কার হাস্যকর।

জনাব নাসিম আওয়ামীলীগের নিবেদিতপ্রান অন্যতম এক বলিষ্ট এবং বড়মাপের জনপ্রিয় নেতা। দলীয়প্রধান শেখ হাসিনার স্বৈরতান্ত্রিক,একক পছন্দ-অপছন্দ ও অনুদার মনমানসিকতার কারনে,সরকার এবং দলের শীর্ষমঞ্চে স্থান না পেলেও,রাজ্জাক-তোফায়েল-নাসিমরাই, আওয়ামীলীগের গর্ব এবং আওয়ামীলীগের সম্পদ।শেখ হাসিনার চারপাশ ঘিরে থাকা কথিত ‘হাইব্রিড’ নেতারা নয়।

তাই মোঃ নাসিমের মতো নেতাদের কাছ থেকে যথাযথ ভারবাহী এবং দায়ীত্বশীল কথাবার্তা ও বক্তব্য-মন্তব্যই কাম্য।