ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

প্রায়ই দেখা যায় শেখ হাসিনা এবং খালেদা জিয়া বিদেশ সফর শেষে দেশে ফেরার সময় তাদের স্ব স্ব দলীয় নেতা-কর্মী-সমর্থকরা বিমানবন্দরে সম্বর্ধনার নামে বিপুল গণসমাবেশ করে যারপরনাই গন দূর্ভোগ সৃষ্টি করে। তারা (হাসিনা-খালেদা) বিদেশ সফর করে, দেশের জন্য-দেশের মানুষের জন্য কি এমন ‘হাতী-ঘোড়া’ কামাই করে নিয়ে আসতেছেন যে, বিমানবন্দরে নামার সাথে সাথেই তাদেরকে এভাবে সম্বর্ধনা দিতে হবে? জনদুর্ভোগে নিষ্পেষিত মানুষের মনে এমন প্রশ্ন জাগলেও করার কিছুই থাকে না। অসহায়ের মতো সৃষ্ট যন্ত্রনা হজম করে যেতে হয়।

কিন্ত খবরে প্রকাশ, এবারে জাতিসংঘের অধিবেশন শেষে দেশে ফেরার কালে জনদুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে দলীয় নেতা-কর্মীদের এবং নাগরিক সমাজ নামধারীদের এমন সম্বর্ধনার আয়োজন নাকচ করে দেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেরীতে হলেও জনদুর্ভোগ এবং জনগনের ভাষা বুঝতে পারার জন্য শেখ হাসিনা দেশের মানুষের ধন্যবাদ পাওয়ার দাবিদার। আসলে বিদেশ সফরে যাওয়া-আসার কালে বিমানবন্দরে বিদায় ও স্বাগতম জানানোর‌ কম-বেশি জনদুর্ভোগ সৃষ্টিকারী চলমান এই রেওয়াজের আদৌ কোন দরকার আছে কি না তা ভেবে দেখা দরকার।