ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

খবরে প্রকাশ-“লোকমানের স্ত্রীকে মেয়র হিসাবে দেখতে চায় নরসিংদীবাসী”। নরসিংদী পৌরসভার জনপ্রিয় মেয়রের মর্মান্তিক মৃত্যুর জন্য তার পরিবার এবং নরসিংদীবাসীর সাথে সারাদেশের মানূষ শোকাহত।এখন কথা আসছে কে হবেন নরসিংদী পৌরসভার পরবর্তি মেয়র।নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের এমন মৃত্যুতে,সাধারনত দেখা যায় তাদের স্থলাভিসিক্ত হয়ে যান,তাদের স্ত্রী-পুত্র-কন্যা-ভাই বা কোন নিকটজনেরা।নরসিংদীর বেলাতেও কথা আসছে নিহত মেয়র লোকমানের স্ত্রীকে নিয়ে। লোকমানের স্ত্রী বা তার কোন নিকটজন যদি এই মেয়র পদের জন্য,দলীয় বা সামাজিক অবস্থান বা পর্যায় বিবেচনায়, লোকমানের সমান্তরালের বা তার পরবর্তি কাতারের যোগ্যতর কেউ হয়ে থাকেন,তাহলে কোন কথা নাই। নিজ অবস্থান এবং যোগ্যতার বলে লোকমানের স্ত্রী বা তার কোন নিকটজন,তার(লোকমানের)স্থলাভিসিক্ত হতেই পারেন। অন্যথায় কেবলমাত্র লোকমানের প্রতি শ্রদ্ধা দেখানোর জন্য এবং তার স্মৃতি ধরে রাখাতে যদি ‘তার স্ত্রী বা পরিবারের কাউকে মেয়র হিসাবে দেখতে চায় নরসিংদীবাসী’-এমন আবেগ থেকে বোধ হয় আমাদের বের হয়ে আসা উচিৎ।লোকমানের মতো জনপ্রিয় নিবেদিতপ্রান নেতারা আমাদের জাতীয় সম্পদ।তাদের এমন অকাল প্রয়ান জাতির জন্য চরম বেদনার এবং অপুরনীয় ক্ষতির কারন।তাদের প্রতি যথাযথ সন্মান ও শ্রদ্ধা পোষন করার, তাদের স্মৃতি ধরে রাখা্র জন্য অনেক কিছুই করার আছে।কিন্ত কেবল মাত্র একারনেই তাদের স্ত্রী-পুত্র বা পরিবারের কাউকে তাদের জায়গায় বসিয়ে দিতে হবে, হটাৎ করে টেনে এনে বা অনেক যোগ্যতরদেরকে ডিঙ্গিয়ে অনেক নীচ থেকে তুলে এনে নেতৃ্ত্বের আসনে বসিয়ে দিতে হবে-এমন সস্তা আবেগের কারনে,সর্বপর্যায়ে পারিবারিকরনের যে ভূত আমাদের ঘাড়ে চেপে বসেছে-এর জন্য আমাদের অনেক মূল্য দিতে হয়েছে,হচ্ছে এবং আরো কতকাল দিতে হবে কে জানে?