ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা, ব্লগ সংকলন: সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ড

 

গত ১৮ই মার্চের কালের কন্ঠে প্রকাশিত হয়েছিল: “সাংবাদিক দম্পতি সাগর সরওয়ার ও মেহেরুন রুনির খুনি গ্রেপ্তার এবং হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবিতে আগামী ৮ এপ্রিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সামনে অবস্থান ধর্মঘট করবেন সাংবাদিকরা।” আরও উল্লেখ ছিল: “সমাবেশে জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি রিয়াজউদ্দিন আহমেদ সরকারকে হুঁশিয়ার করে বলেন, হত্যাকাণ্ড ধামাচাপা দেওয়া হলে তার পরিণতি শুভ হবে না। তদন্ত নিয়ে যা করা হচ্ছে, তা ন্যক্কারজনক। এত উদাসীন দৃষ্টিভঙ্গী অতীতে দেখিনি।” আমার প্রশ্ন অনেকদিন পরপর এই ধরনের প্রতিবাদ করে কি কিছু আদায় করা যাবে! আমাদের গভীরভাবে চিন্তা করার সময় হয়েছে এখন যে এই সাগর-রুনী কি কি কারণে খুন হতে পারে। তারা কোন কোন সেক্টরে কাজ করছিল সেটা নিয়ে গবেষনা করা দরকার। মনে খুব সন্দেহ জাগে যখন দেখি এতদিন হয়ে গেল অথচ পুলিশ আজও কাউকে ধরতে পারলো না। নাকি পুলিশ ঠিকই জানে কে বা কারা খুনী।

পার্বত্য চট্টগ্রাম এবং জ্বালানী সেক্টর নিয়ে সাগর-রুনীর কাজগুলো খতিয়ে দেখা প্রয়োজন।