ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

 

বর্তমান সময়ের গল্প-উপন্যাসে ভিনগ্রহের প্রাণীদের কথা খুব লেখালেখি হচ্ছে । এসব নিয়ে কত সিনেমা-নাটক হচ্ছে তার আর ইয়ত্তা নেই । এমন কি হালের বিজ্ঞানও ভিনগ্রহে প্রানীর অস্তিত্ব নিয়ে অনেক সম্ভাবনার কথা বলে…..। বিজ্ঞানবিশ্বে মঙ্গলে,বৃহঃস্পতির চাদে প্রানের অস্তিত্ব নিয়ে জোর গুজব প্রচলিত আছে । প্রমাণিত না হওয়ার আগ পর্যন্ত এসব বিশ্বাস করতে কষ্ট হলেও ,ভাবলে, নিশ্চিত মনে হয় পৃথিবীর বাইরেও অনেক প্রাণী আছে ।

অনেকে ভাবেন, ভিন্ন গ্রহে কোন প্রানী নেই এবং তারা এ কাজে ধর্মের দোহাই দেন । বলেন , মানুষই একমাত্র প্রানী এই মহাবক্ষ্মান্ডে ।কিন্তু এখানে মজার একটা ব্যাপার হলো, ধর্মগ্রন্থগুলো মতেই মানুষ নিজেই ভিন্ন কোন জগতের প্রানী, মানে আদম বা মানুষ নিজেই এলিয়েন । স্বর্গ বা ভিন্ন কোন জগত হতে মানুষকে পৃথিবীতে পাঠানো হয়েছে বসবাস করার জন্য….যদি ধর্মে বিশ্বাস করেন তাহলে একথা বলতেই হয় আমরা সবাই এলিয়েন বংশদ্ভুত। এখানে, একমাত্র বিজ্ঞান’ই বলে মানুষের সৃষ্টি এই পৃথিবীর পরিবেশ হতে, যদিও কোন কোন বিজ্ঞানী উল্কা বা ধুমকেতুর মত কোন কিছুর মাধ্যমে প্রানের অস্তিত্বের বিশ্বভ্রক্ষ্মান্ডে ভ্রমনের কথা বলেন ।

কোটি কোটি গ্যালাক্সীর মধ্যে একমাত্র পৃথিবীতেই প্রান আছে, এমন বিশ্বাসীদেরকে নিজকে নিয়ে চরম গরিমাকারী বলেই মনে হয় । পৃথিবীতে এমন লোক আছেন যারা নিজের মতের,বোধের বাইরে অন্য কোনকিছুকে এপ্রিশিয়েট করতে পারেন না ,মনে হয় এ ধরনের লোকগুলোই এলিয়েনের অস্তিত্ব নিয়ে হাসি-তামাশা করে । আমরা মনে করি, মানুষ নিজেই এলিয়েন, সে স্বর্গে সৃষ্টি হোক আর মর্ত্যে । যেখানেই প্রান সৃষ্টির অনুকুল পরিবেশ থাকবে সেখানেই প্রানের অস্তিত্ব থাকবে, না থাকাটাই বরং অস্বাভাবিক ।