ক্যাটেগরিঃ মুক্তমঞ্চ

 

আত্মহত্যা করা মহা পাপ ! তারপরেও এই পাপ করার চিন্তা যে কারো কখনো মনে আসেনি এমনও নয় । মাঝে মাঝে আমার মনেও আসে, কেন আসে তা এখানে লেখাও সম্ভব না । যদি লিখি তখন হয়ত এই পোস্টটাও প্রকাশ করা হবে না । ধর্ম নিয়ে বিতৃষ্নার লেখাগুলো এখানে ছাপানো হয় না । আমার হতাশা গুলো অধিকাংশই ধর্মকেন্দ্রিক । বুঝে আসে না, পিপীলিকার মৃত্যুর পরে যদি কোন জীবন না থাকে তাহলে মানুষের কেন থাকব ! বুঝে আসে না, প্রতিনিয়ত কোটি ব্যাকটেরিয়া আমার নিজের ভিতরে কিভাবে জন্ম-মৃত্যু চক্রের মধ্যে থাকে ! বুঝে আসে না , বিশাল মহাবিশ্বের স্রষ্ঠা সর্বশক্তিমান ইশ্বরের কেন শুধুমাত্র মানুষের মত নগন্য এক প্রানীর আরাধনার দরকার হয় ! সত্যিই বুঝে আসে না যে উনি নিজেকে গোপন রেখে কিভাবে নিজের অস্তিত্বে মানুষে বিশ্বাস করবে বলে মনে করেন ! তাই এ ব্যাপারগুলো বাদ থাক, আজ অন্য কিছু নিয়ে লিখি…।

শুরুর প্রসঙ্গে আসি, আত্মহত্যা…। হতাশা থেকে আত্মহত্যা করার চিন্তা করে এমন মানুষের উদ্দেশ্যে কিছু কথা..। ভাই, জন্ম-মৃত্যু একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া….। এ প্রক্রিয়াতে আপনার পৃথিবীতে আসার পিছনে অনেক অনেক আত্মত্যাগ জড়িয়ে আছে । যে শুক্রানু জরায়ুতে প্রবেশ করার মধ্যে দিয়ে আপনার পথ চলা…তা আপনার নয় অন্য কারো ত্যাগ ! তখনও আপনি একা ছিলেন না, এক যৈান মিলনে দশ লক্ষেরও অধিক শুক্রানু নির্গত হয়, এর মধ্যে মাত্র একটি সারভাইব করে । আপনি কি ভেবে দেখেছেন ? আপনার পথ চলার শুরুতে আপনার কত ভাই-বোন মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েছেন ! আপনার সারভাইবালের পিছনে কত মৃত্যু জড়িয়ে আছে !! একটু ভাবেন ! এরপর ভেবে দেখেন ভ্রুন থেকে আজকের আপনি হওয়া পর্যন্ত আপনার জন্য কত জনে কত কিছু স্যাক্রিফাইস করেছেন ! আপনার জন্মের খবরে কতলোক খুশি হয়েছে….এমন একজনের কথাও কি জানেন, যিনি আপনার পৃথিবীতে আসার কারনে দুঃখ পেয়েছেন !! আপনার জন্য কত কি যে করা হয়েছে….এসবের সঠিক বর্ননা কাধের ফেরেস্তা ছাড়া আর কেউ দিতে পারবে বলে’ত মনে হয় না !

এ কথাগুলো সবাই জানেন, তারপরেও বলার অর্থ হলো, আপনার জন্যে করা প্রত্যেকটি সেক্রিফাইস আপনার বিশেষত্বের প্রতীক । আপনার কান্নার জন্য বাবা-মায়ের ঘুম বিসর্জন দেওয়া থেকে শুরু করে স্কুল থেকে ফিরলে কি খাবেন এ নিয়ে চিন্তারত মায়ের ভাবনা পর্যন্ত, সবটা জুড়েই ছিলেন আপনি !! হ্যা..। এ কথা সত্যি যে আপনি আসলেই বিশেষ কিছু… প্রকৃতি আপনাকে অনেক আত্মত্যাগের বিনিময়ে সচল রেখেছে…। আরো গভীরে গিয়ে দেখলে দেখবেন, আপনার সারভাইবাল মিলিযন মিলিয়ন বছরের বিবর্তনের ফসল । ভেবে দেখেন আদম এবং হাওয়া , এই দুজন মানুষ থেকে যদি আজকে সাড়ে ছয়শ কোটিরও উপরে মানুষ থাকতে পারে…..তাহলে আপনার ভিতর ঠিক কি পরিমান অনাগত ভবিষ্যত মানুষ লুকিয়ে আছে ! যদি আপনাকে সঙ্গী সহ বাস উপযোগী কোন গ্রহে ছেড়ে দেওয়া হয় তাহলে লক্ষ বছর পরে ওই গ্রহের জনসংখ্যা বর্তমান কালের পৃথিবীর সমান অথবা আরো বেশি হতে পারে ! এত বড় মহা ভবিষ্যতকে কি আপনি অঙ্কুরেই বিনষ্ট করতে চান !!

তাই বলি ভাই, আপনার জীবন অত্যন্ত গুরত্বপূর্ণ…অত্যন্ত অত্যন্ত গুরত্বপূর্ণ…। শুধুমাত্র কেউ তার অতীত এবং অনাগত ভবিষ্যত নিয়ে চিন্তা করলেই নিজের গুরত্ব বুঝতে পারার জন্য তা যথেষ্ট হবে । আর আপনি কোথাকার কোন সামান্য জিনিসের উপর রাগ করে আত্মহত্যা করতে চলেছেন ! আপনার বিশাল অতীত এবং ভবিষ্যতের তুলনায় কতই না ক্ষুদ্র আপনার বর্তমান সমস্যা ….। এরপরেও আরেকটি ব্যাপার, যে মরার মত কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে পারে তার জন্য আর কোন কিছুই কঠিন রইল না ! সমস্যার জন্য মরার চাইতে’ত সমস্যা সমাধানে ঝাপিয়ে পড়ে মরা ভালো…। মরতে যখন হবেই তখন সমাধানের চেষ্ঠায় বা কেন করবেন না ! পারলে পুলিশের গুলি খেয়ে মরেন….এতে যদি কারো টনক নড়ে তাহলে আপনার মত ভেবে চলা আরো লাখো মানুষ বাচার অনুপ্রেরনা পাবেন !! শুধুমাত্র একটু ভাবেন…আর বলেন… এরপরেও কি আপনি আত্মহত্যা করতে চান ?