ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

কে এই ইলিয়াস? তিনি একজন মহান রাজনীতিবীদ,এবং মহান ব্যাক্তি। তার কারনে পুরা দেশকে অচল করে দিবার আগ্রহ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল। ইলিয়াস আলি এমনই এক ব্যক্তি যার কারনে বিএনপি এর প্রতিটা নেতার মন কাঁদছে, তাকে না পাবার বেদনায় বিএনপি দেশের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করেছে। বিএনপি নেতাদের এমন ভাব যে এই ইলিয়াস ই তাদের সবকিছু, তাদের কলিজা, গিলা, ফুসফুস, রক্ত, হাড়, চামড়া। মির্জা সাহেব আর বেগম জিয়া সাহেবার এখন একটাই ইচ্ছা যে ভাবেই হোক তাদের প্রানের চেয়ে প্রিয় নেতা এম ইলিয়াস আলিকে খুঁজে বের করা। আর কিছু তাদের চাইনে, মহান নেতাকে খুঁজে বের করার জন্য বিএনপি হরতাল দিয়ে দিয়েছে, আর এর কারনে যদি আমাদের শিক্ষা ব্যাবস্থা অচল হয় হোক, যদি খেটে খাওয়া মানুষ রা ভাত না পায় পাক, দেশের হাজার কোটি টাকা ক্ষতি হচ্ছে,হোক না!!!! কিছু মানে কম করে হলেও ৬০/৭০ বাসে আগুন দিয়ে কিছু মানুষকে আতংকিত করা আর ৮/১০ টা মানুষকে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মেরে ফেলা, কিচ্ছু যায় আসেনা, বরং আগুন আগুন খেলা খেলে আমাদের দাদা এবং দিদি মনিরা মজা পান, তবে দাদারা সবচেয়ে বেশি মজা পান যখন তারা ৭/৮ প্রাইভেট কার ভাঙ্গেন, আর গাড়ির ভেতরের আতংকিত মুখ গুলু দেখেন, তখন দাদাদের মুখে বিশ্ব জয়ের হাসি। আমাদের নেতাদের কাছে আমাদের মত সাধারন মানুষের কোন মুল্য নাই,তাদের নেতা রাই তাদের সব।তা না হলে গতকাল মির্জা..ফখরুল বলতেন না তাদের ৬০০ নেতা কর্মী পুলিশ আটক করেছে, কিন্তু বিএনপি শান্তি পূর্ণ হরতাল পালন করেছে। বিএনপি একজন ইলিয়াসের জন্য সরকারকে দুষছে, বলছে এর দায় সরকারকে নিতে হবে। তা হলে ঐ বাস ড্রাইভারের মৃত্যর জন্য কে দায়ী? কে দায়ী বাস,রিক্সা,প্রাইভেট কার আগুন লাগিয়ে পুড়ানোর জন্য? হাজার হাজার মানুষ কে আহত করে হাসপাতালে পাঠানের জন্য কে দায়ী?

আওয়ামী লীগ যদি ইলিয়াস আলী কে গুম করে একটা ভুল করে,তাহলে বিএনপি হাজারো ভুল করছে। থু থু থু….বাংলাদেশের নষ্ট রাজনীতি কে, থু..সেইসব রাজনীতিবিদদের যাদের কাছে সমগ্র জাতি অসহায়, আর গুটি কয়েক মানুষ আপ্যায়িত হয়।

আমার আপনার জন্য কেউ নাই।