ক্যাটেগরিঃ চারপাশে

গত ২৮ জুলাই শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় বরিশাল- খুলনা মহাসড়কের ঝালকাঠী গাবখান ব্রীজের মর্মান্তিক মটর সাইকেল দূর্ঘটনায় ঝালকাঠী জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সৈয়দ সামসুল আলম তার বড় ভাই রাজাপুর বড়ইয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সৈয়দ শাহ্ আলম ও মটর সাইকেল চালক ইলিয়াস হাওলাদার। তাদের মৃত্যুতে ঝালকাঠী, রাজাপুর সহ সর্বত্র এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। কিছুদিন আগে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় কেড়ে নিয়েছে আমাদের জাতীয় জীবনের প্রিয় দুটি নাম তারেক মাসুদ ও মিশুক মনির। নির্মম সড়ক দূর্ঘটনার শিকার হয়ে অকালে ঝড়ে গেলেন বরিশালের ফটো সাংবাদিক শহিদুজ্জামান টিটু, সাংবাদিক দীনেশ ও বিভাস চন্দ্রের স্মৃতি আজও ভুলতে পারিনি। জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে রাস্তা পাড় হতে গিয়ে পঙ্গুত্ব বরণ করে মানবেতর জীবন যাপন করছেন সাংবাদিক নিখিল ভদ্র। এভাবে আর কত সড়ক দূর্ঘটনায় আমাদের গুরুত্বপূর্ণ জীবনগুলো হারিয়ে যাবে।

নিরাপদ সড়ক চাই, আন্দোলনের অগ্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন এখনও গভীর রাতে নিঃশব্দে কাঁদে সড়ক দূর্ঘটনায় কেড়ে নিয়েছে তার প্রিয়তমা স্ত্রীর জীবন। প্রতিদিন যোগাযোগমন্ত্রী বিভিন্ন স্থান প্রদর্শন করছেন এবং কাজে অবহেলার জন্য সহকারী প্রকৌশলী সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদেরকে বরখাস্ত করে বলছেন- এভাবে উন্নয়ন সম্ভব নয়। জাতীয় জীবনে আমরা যদি নিজেরাই সচেতন না হই আর না হই দেশপ্রেমিক তাহলে এভাবেই অদূর ভবিষ্যতে ঝড়ে যাবে আরও অনেক জীবন। যারা আমাদের সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য অনেক বেশি ভূমিক পালন করতে পারতেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ সামসুল আলম ও তার ভাই সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শাহ্ আলম সহ গাড়ী চালক ইলিয়াস হাওলাদারের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। আল্লাহ যেন তাদের জান্নাতবাসী করেন।