ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

পল্টনে সাংবাদিক দম্পত্তি ফরহাদ খাঁ নিজ বাসায় খুন, রাজা বাজারে মেধাবী সাংবাদিক দম্পত্তি সাগর-রুনির নৃশংস খুন, গুলশানে ধনাঢ্য ব্যবসায়ী ফজলুল হক খুন। পত্রিকার পাতা খুললেই খুন আর খুন, স্যাটালাইট টিভির চ্যানেল খুললেই গুম আর খুন অথচ খুনিরা ধরা ছোঁয়ার বাহিরে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এখনও কোন খুনের রহস্য উম্মোচন করতে পারেনি আর সে কারণেই মানুষের সবচেয়ে নিরাপদ স্থান নিজ বেডরুমে খুনের ঘটনা বেড়েই চলেছে। খুনিরা বাহিরে থেকে এখন বেডরুমে খুন করতে নিরাপদ মনে করে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও তার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা বক্তব্য আর বিবৃতির মাধ্যমে খুনিদের গ্রেফতার করার চেষ্টা করছেন। তাইতো আজও সাগর-রুনির হত্যাকারীরা গ্রেফতার হয়নি। এখনও কেউ জানেনা গুম হওয়া কমিশনার চৌধুরী আলম কিংবা এম.ইলিয়াস আলী কোথায়? গত ৩১ জুলাই সন্ধ্যার পর রাজধানির দক্ষিন খানে নিজ বাসায় নৃশংসভাবে খুন হলেন সাবেক সেনা কর্মকর্তা নাছির উদ্দিন (৬৩) ও তার স্ত্রী মাহমুদা খাতুন মুক্তা (৫৬)। খুন হওয়ার পর পরই সেখানে ছুটে গেলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পুলিশের আইজিপি, ডিএমপি পুলিশ কমিশনার, র‌্যাব, সিআইডি সহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা এভাবে ছুটেগিয়ে ছিলেন ফরহাদ খাঁ দম্পত্তির বাসায়, সাগর-রুনির বাসায়, ফজলুল হকের বাসায় অথচ কোন খুনি এখনও গ্রেফতার হয়নি। খুনিরা যদি গ্রেফতার হতো হয়তোবা আমাদের শুনতে হতো না সেনা কর্মকর্তা দম্পত্তির খুনের ঘটনা । আমরা চাই ব্যর্থতার দায়ে বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করুক। আমরা নতুন কোন খুনের ঘটনা শুনতে চাইনা বেডরুমে। চাই স্বাভাবিক ভাবে বেচেঁ থাকার অধিকার।