ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী এবং কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের অতিপ্রিয় মানুষ ছিলেন জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের শিক্ষক, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সিনিয়র সদস্য, প্রক্টর, আল-বেরুনী হলের প্রভোস্ট, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক, রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ড. গোলাম হোসেন মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় গত সোমবার রাত ৯টায় নিজ বাসায় যাওয়ার পথে আশুলিয়ার মরাগাঙ এলাকায় একটি ট্রাক তার গাড়িকে ধাক্কা দিলে দূর্ঘটনা ঘটে। পরে তাকে উত্তরার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হলে অবস্থার অবনতি ঘটলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

গুনী অধ্যাপক ১৯৫৪ সালে গাজীপুরের কাপাসিয়ার তরগাঁও গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি ১৯৭০ সালে মাধ্যমিক ও ১৯৭২ সালে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেন। ১৯৭৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে স্নাতক ও ১৯৭৬ সালে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন। পরে তিনি জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয় যোগদান করেন এবং গ্রামের বাড়িতে মঙ্গলবার বিকেলে পারিবারিক কবর স্থানে তার দাফন করা হয়। মৃত্যুর সময় তিনি তার স্ত্রী, এক ছেলে ও দুই মেয়ে সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। গুনি এই ব্যক্তি মৃত্যুতে শোকবিহ্বল ক্যাম্পাস ও গ্রামের বাড়িতে হাজার হাজার মানুষ শেষ শ্রদ্ধা জানাতে আসেন। না ফেরা দেশে চলে গেলেন ড. গোলাম হোসেন তিনি আর ফিরবেন না। যেমন ফিরবে না মিশুক মনির, তারেক মাসুদ, সাংবাদিক দিনেশ, বিভাস ভাদ্র, ফটো সাংবাদিক শহিদুজ্জামান টিটু । আর কত সড়ক দুর্ঘটনায় ঝড়ে যাবে অকালে আমাদের অতিপ্রিয় মানুষদের প্রান। সরকার কবে কঠিন আইন করে সড়ক দূর্ঘটনা কমিয়ে আনার জন্য পদক্ষেপ গ্রহন করবেন। আমরা ড. গোলাম হোসেনের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। মহান আল্লাহ যেন তাকে জান্নাত দান করেন এবং তার পরিবারকে এই শোক সহিবার শক্তি দান করেন।