ক্যাটেগরিঃ চারপাশে

 

বাংলাদেশে কিছু প্রচলিত শব্দ আছে। এই শব্দ গুলোর সাথে মানুষ যেমন জড়িত তেমনি সাধারন মানুষ তাদের ঘৃনা করে। কিছু মানুষ আছে যারা সরকারী জমি, জলাশয় এমনকি সাধারন মানুষের জমি দখল করে নেয় আমরা তাদের ভুমি দস্যু বলি। এদের কে মনে প্রানে সবাই ঘৃনা করে । আরেক দল আছে পরিবেশ বিনষ্ট করে বনের পর বন উজার করে দেয়। এমন এক বন খেকো ধরা পরেছিল তার বালিশের নীচে বিছানার নীচে টাকা ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছিল। সেই বন খেকো তার বৃদ্ধ মা কে ঠিক মত দেখা শোনা করত না ।জানি না ঐ বন খেকো এখন কোন বন উজার করছে। আর এক কিছিমের মানুষ আছে যারা নদীর পাড় দখল করতে করতে নদীকে দখল করে নেয়। আমাদের বুড়িগঙ্গা দেখলে আপনারা উপলব্ধি করতে পারবেন নদী দখল কাকে বলে আর নদী দখল কত প্রকার । শুধু বুড়িগঙ্গা নয় বালু , তুরাগ , শীতলক্ষা সহ দেশের এমন কেনা নদী পাবেন না যা এই দখলবাজরা দখল না করছে। আর এবার পাহড় চোরদের কারনে একশোর বেশী মানুষ প্রান হারালো । এর আগে ২০০৭ সালে আর একবার পাহাড় ধসে প্রায় ১৪০ জন মানুষ মারা যায়। তাছাড়া প্রায় প্রতি বছর পাহাড় ধসে কম বেশি মানুষ মারা যায়। বছরের পর বছর পাহাড় কাটা হচ্ছে কেউ দেখার নেই। আর স্থানীয় প্রশাসন তারা জানত অতিবৃষ্টিতে পাহাড় ধসে পরতে পারে তারা কেন আগে থেকে ঐ সমস্ত মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে নেয়নি। কর্তৃপক্ষ মাইকে প্রচারণা চালিয়েছে এতেই তাদের দায়িত্ব শেষ হয় না । ঐ সমস্ত মানুষ কোথায় যাবে কি খাবে তার ব্যবস্থা না করলে ঐ বৃষ্টির মধ্যে তারা কোথায় যাবে । তাই ভবিষ্যতে এই ধরনের অতি বৃষ্টি দেখা দিলে আগেই উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে তাহলে আশা করা যায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমান কম হবে।

আমার প্রশ্ন শুধু সরকারের কাছে নয় বরং এ দেশের প্রতিটা মানুষের কাছে এই যে ভুমি দস্যু, নদী দখলবাজ, বনখেকো আর পাহাড় চোর এদের কি শাস্তি হবে না । আমরা কি এদের হাত থেকে মুক্তি পাব না । আমার প্রশ্ন মানবাধিকার কমিশনের কাছে যাদের জন্য শত শত লোকের প্রান গেলো তাদের ব্যাপারে আপনারা তো কিছু বলেন না আর একটা ক্রসফায়ার হলে আপনাদের চিৎকারে দেশ প্রকম্পিত হয়ে যায়। আজ যে শতাধিকের বেশী মানুষ মারা গেলো তার দায়িত্ব কে নেবে। এরা মানুষ না এরা গরীব তাই এদের ব্যাপারে আপনাদের কোন দায়িত্ব নেই। তাই বলছি সাধু সাবধান যেদিন মানুষ জেগে উঠবে সেদিন সবাইকে সঠিক হিসাব মিলিয়ে দিতে হবে , সে দিন যেমন ভুমি দস্যু , বন খেকো , নদী দখলবাজ , মাদকের ব্যবসায়ী আর পাহাড় চোরেরা মাফ পাবে না তেমনি এদের যারা আশ্রয় দেয় তাদের কে ক্ষমা করা হবে না । সেদিন বেশী দূরে নয় বাংলাদেশের পরিবর্তন হবেই , আমরা পরিবর্তন করে ছাড়বো ইনশাল্লাহ।