ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

 

সাম্প্রতিক জামাত – শিবির , ছাত্রলীগ – যুবলীগ এবং পুলিশের বিভিন্ন মুখী হামলা , ভাংচুর এবং গ্রেফতার আতন্কে আছে সাধারন মানুষ। মনে হচ্ছে এই অবস্থা আরো ও খারাপ হবে । আমরা যারা সাধারন মানুষ এখন তাদের চলাফেরায় অসুবিধা হচ্ছে বিশেষ করে আমার মতো যারা ইসলামী ড্রেস পরে রাস্তায় বের হচ্ছে তাদের ভোগান্তি চরমে । বেশীর ভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় যারা ভাংচুর বা হামলা করে তাদের কে পুলিশ ধরতে পারে না । এ দেশে যেহেতু একটা বয়সের পর বেশীর ভাগ লোক দাড়িটুপি রাখে আবার তাবলীগের ভাইয়েরা অল্প বয়সে দাড়ী টুপি রাখে আবার আমার মত হাজার হাজার যুবক আছে যারা আসলে কোন দল করে না তারা ও দাড়ী, টুপি , পাজামা , পাঞ্জাবী বা কাবলী সুট পরে তাদের ও রাস্তায় বের হওয়া এখন মুশকিল । তাই পুলিশ ভাইদের প্রতি বিশেষ অনুরোধ দাড়ী ,টুপি দেখলেই তাকে জামাত শিবির ভাববেন না আর যেহেতু জামাত শিবির অনেক দশক ধরে রাজনীতি করছে , সংসদে তাদের প্রতিনিধিত্ব আছে এবং একটি নিবন্ধিত রাজনীতি সংগঠন তাই তাদের যে কোন শান্তিপূর্ন মিছিল সমাবেশ করার অধিকার দিতে হবে । আমরা মনে করি পুলিশ শুধু জামাত শিবির নয় ছাত্রলীগ , যুবলীগ , ছাত্রদল যারাই অপরাধ করবে তাদেরকেই গ্রেফতার করবে । কিছুদিন আগে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রাকাশ্যে অস্ত্র সহ যাদের দেখা গেছে তাদের এখনো গ্রেফতার করা হয়নি, অবিলম্বে তাদের গ্রেফতার করতে হবে । আবার রাজশাহীতে ছাত্রলীগের যে ভাইয়ের পায়ের রগ কেটে দিয়েছে তাদেরকে অবশ্যই গ্রেফতার করতে হবে । পুলিশের কাছে কোন অপরাধীরই দলীয় পরিচয় থাকা ঠিক নয় । পুলিশকে দলমত নির্বিশেষে দেশের সাধারন জনগনের জন্য কাজ করতে হবে। সাধারন জনগন পুলিশের উপর আস্থা রাখতে চায় এবং সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠায় পুলিশকে সহযোগিতা করতে চায় ।