ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

ভারতে মেডিকেল ছাত্রীর গনধর্ষন এবং তারপর তার মৃত্যু সারা ভারত জুড়ে বিক্ষোভ হচ্ছে। এই ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে ভারতের প্রতিটা মানুষ ব্যাথিত হয়েছে । সারা ভারতকে নির্ভয়া বা আমানাহ নামক মেয়েটি এক সুতায় বেধে দিয়েছে। এখানে কেউ কাউকে দোষারোপ করছে না বরং সবাই ধিক্কার জানাচ্ছে। অথচ আমাদের দেশে এই রকম ঘটনা অহরহ ঘটছে আমরা এর কোন প্রতিবাদ করতে পারছি না । মানবাধিকার কমিশন বা নারী আন্দোলনের যারা নেতৃত্ব দেন তাদের ও অসহায়ের পাশে দাড়াতে দেখা যায় না । পুলিশের গাফলতি , স্থানীয় প্রভাবশালীদের মদদে প্রায় সব সময়ে অপরাধীরা পার পেয়ে যাচ্ছে। আমাদের এখনই ঐ সব জগন্য অপরাধীদের বিরুদ্ধে সোচ্চার প্রতিবাদ করতে হবে। আমরা কারো থেকে কিছু শিক্ষা গ্রহন করি না । ভারতের ঘটনা থেকে আমাদের শিক্ষা গ্রহন করা উচিৎ । হয়ত আমরা সব অপরাধীকে শাস্তির আওতায় আনতে পারব না তবে তাদের মনে ভয় জাগাতে পারব যদি আমরা যে কোন অপরাধের প্রতিবাদ শুরু করি। আমি থার্টি ফাষ্ট উদযাপন প্রসগ্রে বলেছি আমার বোনেরা যেন কাউকে বিশ্বাস করে নিজের সর্বনাশ না করেন । আমি আবার যুবক ভাইদের বলছি আপনারা দয়া করে বিপদাপন্ন মানুষের পাশে দাড়ান , বিশেষ করে যখন কোন নাড়ী বিপদে পরে ভাইয়ের মত তার পাশে দাড়ান মহান আল্লাহ আপনাকে হেফাযত করবেন। পরিশেষে একটা কথা না বলে পারছি না আর তা হল আমাদের দেশে সাধারনত অপরাধীদের শাস্তি হয় না তাই অপরাধীরা দিন দিন সাহসী হয়ে উঠছে। ফাসির আসামী ও বিভিন্ন সুযোগ কাজে লাগিয়ে মুক্তি পেয়ে যাচ্ছে তাই অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে আমাদের গনসচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে এবং প্রচার প্রচারনা চালিয়ে যেতে হবে । আমাদের বিবেককে জাগ্রত করতে হবে ।