ক্যাটেগরিঃ ব্লগালোচনা

ব্লগ হচ্ছে আনন্দ, অনুভূতি, কষ্ট, অভিমান,ক্ষোভ প্রকাশের আর সামাজিক আন্দোলনের অন্যতম মাধ্যম। আমরা যার ব্লগার যাদের হয়ত কোন কিছু করার ক্ষমতা নেই আবার সমাজে আমাদের চারপাশে সংগঠিত অন্যায়, অপরাধ দেখে ও চোখ বন্ধ করে সহ্য করার মত বিবেকহীন মন নেই তাদের একমাত্র অবলম্বন হচ্ছে এই ব্লগ।আর এই ব্লগের মাধ্যমেই আমরা তুলে ধরতে পারি দেশের নানা অসংগতি। এখনকার সময়ে ব্লগাররা সামাজিক পরিবর্তনে এক বড় ভূমিকা পালন করছে।

অনুসন্ধানী সাংবাদিক এবং জনপ্রিয় ব্লগার আবু সুফিয়ানের বব্স’এর জুরি এওয়ার্ড প্রাপ্তি আমাদের সকল বাংলা ব্লগারকে ভালোভাবে ব্লগিং এর মাধ্যমে কাজ করতে উৎসাহ জোগাবে। সাহস জোগাবে যে কোন সামাজিক আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তে। আবু সুফিয়ান আজ বাংলা ব্লগকে দাড় করিয়েছেন বিশ্ব কাতারে যা সত্যিই প্রশংসার দাবিদার।

সুফিয়ানের লেখা একটি ব্লগ ‘রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডার্স’ বিভাগে সেরা নির্বাচিত হয়।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ও বিভিন্ন ভাষার ব্লগার ও সাংবাদিকদের উপস্থিতে মঙ্গলবার বনে ডয়চে ভেলের গ্লোবাল মিডিয়া ফোরামে এ রিপোটার্স উইদাউট বডার্স-জার্মানির নির্বাহী পরিচালক ক্রিস্টিয়ান মায়ার হাত থেকে আবু সুফিয়ান পুরস্কারটি গ্রহন করেন। অনলাইনে পাঠকদের ভোটে আসিফ মহিউদ্দিনের ব্লগ এবং সুড়ঙ্গ-নিয়াজের ভুবন‘ইউজার প্রাইজ’ পায় ।

বিচার বহির্ভূত হত্যা,সন্ত্রাসী, গুমসহ নিরাপত্তা বাহিনীর বিভিন্ন অন্যায় কার্যকলাপের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন আবু সুফিয়ান৷ অনুসন্ধানী এই সাংবাদিকের সম্পূন’ ব্লগ জুড়ে রয়েছ নানা ধরনের অনুসন্ধানী প্রতিবেদন,আন্দোলনের ডাক এতে করে তিনি দ্রুত জনপ্রিয় ব্লগার হিসেবেও পরিচিতি পান ।

ঢাকায় নিজ বাসভবনে খুন হওয়া সাংবাদিক দম্পতি সাগর সরওয়ার এবং মেহেরুন রুনির হত্যাকাণ্ডের বিচারের দাবিতে সব ব্লগারদেরকে একত্রিত করে আন্দোলন করতে সুফিয়ান সবচেয়ে অগ্রনী ভূমিকা পালন করেছিলেন আর এখন ও যাচ্ছেন যা সত্যিই পুরস্কারযোগ্য।

অনুসন্ধানী আর সাহসী আবু সুফিয়ান প্রতিমুহূতে’ জীবনের ঝুকি নিয়ে তৈরী করেছেন অনেক সাহসী প্রতিবেদন যা সত্যিই আমাদের সবার জন্য উৎসাহদায়ক।
আমরা সব বাংলা ব্লগার আবু সুফিয়ানের এই স্বীকৃতিতে তাকে অভিনন্দন জানাই, গবি’ত হই আর তার আদশে’ অনুপ্রাণিত হয়ে সমাজ পরিবত’নের আন্দোলন ঝাপিয়ে পড়ি।
সুফিয়ানের ব্লগ পড়তে ক্লিক করুন