ক্যাটেগরিঃ চারপাশে

৩রা জানুয়ারি প্রচণ্ড গরমে যখন সিডনী ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ইন্ডিয়া আর অস্ট্রেলিয়ায় মধ্যে ১০০ তম টেস্ট ম্যাচ শুরু হোলো। তুমুল উত্তেজনার মধ্যে যখন ইন্ডিয়ার ৪ টা উইকেট পড়ে গেছে যখন ইন্ডিয়া আর অস্ট্রেলিয়ায় দশ’করা রুদ্ধশ্বাসে ম্যাচটা উপভোগ করছে হঠাৎ কিছু প্রবাসী বাংলাদেশী তরুণ দাঁড়িয়ে শ্লোগান শুরু করল! হাতে ব্যানার: “ No Indian Dam @ Tipai, Save Bangladesh”.

শ্লোগানে শ্লোগানে তারা মাঠ মুখরিত করে তুলল, এ যেন জেগে উটল ছোট্র এক টুকরো বাংলাদেশ।এই তরুনরা যেন প্রতিনিধিত্ব করছিল,প্রকাশ করছিল পুরো জাতির আবেগ। ছেলেমেয়েগুলোর মুখ উত্তেজনায় উদ্ভাসিত ছিল, আর গ্যালারির দর্শকরা শ্রদ্ধায় মাথা নত করেছিল।

এই ছেলেমেয়েগুলোর কোনও রাজনৈতিক পরিচয় নেই,তারা শুধু দেশের স্বাথ’ রক্ষার জন্য তাদের প্রতিবাদের ভাষা সুদুর অস্ট্রেলিয়ায় ও পৌছে দিয়েছে।

দেশ তাদেরকে কী দিলো, তারা সেদিকে ভ্রুক্ষেপ না করে প্রতিবাদ জানিয়েছে।নিশ্চয় তাদের মধ্যে অনেকেই ইন্ডিয়ার দারুণ সমর্থক ছিল,কেউ হয়ত ছিল কোন না কোন খেলোয়াড়ের চরম ভক্ত কিন্তু তারা কেউ তাদের দলকে সাপোট’ না জানিয়ে কোন প্রিয় খেলোয়াড়ের প্লেকাড’ হাতে না নিয়ে তারা নিয়েছিল টিপাইমুখ বন্ধের প্লেকাড’।

কষ্টার্জিত টাকা ইন্ডিয়া-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের টিকেট কিনে তারা আনন্দ ফুতি’ না করে দেশের জন্য কাজ করেছে।সমুস্ত বিশ্বকে জানিয়ে দিতে চেয়েছে বাংলাদেশের কোটি মানুষের দাবি।শ্রদ্ধা জানাই তাদেরকে যারা তীব্র রোদ আর প্রচণ্ড গরম উপেক্ষা করে প্লেকাড’ হাতে দাড়িয়ে ছিল।

বিশ্বের অনেকেই হয়ত জানত না টিপাইমুখ কি বা এর ক্ষতিকর প্রভাব কি? অনেক অস্ট্রেলিয়াবাসী এর মাধ্যমে জানতে পারল টিপাইমুখ কি? আর এর উপর ভারত অন্যায়ভাবে বাধ দিলে বাংলাদেশ কতটুকু ক্ষতির সম্মুখীন হবে।

দেশের সব রাজনৈতিক দল এই আন্দোলনকে ইস্যু করে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের চেষ্টা করছে।তারা লোক দেখানো বিভিন্নএর কর্মসূচী নিচ্ছে, লং মার্চ করছে, মানব বন্ধন করছে। আমার প্রশ্ন হচ্ছে এত বড় একটি জাতীয় ইস্যুতে কেন আমাদের সব দল ,সব মানুষ স্বতন্ত্র ভাবে আন্দোলন না করে এক হতে পারছে না।একজন আরেকজনকে দোষারোপ করে কি লাভ হচ্ছে? তাদের দিকে থাকিয়ে বসে না থেকে আমাদের যুব সমাজকে একত্রে এগিয়ে আসতে হবে এই তরুনদের মত কারন ৫২ বলেন ৬৯ বলেন আর ৭১ বলেন প্রতিটা আন্দোলনের প্রাণই তো ছিল এই তরুনেরা।

বিদেশ থেকে যদি এই তরুনরা দেশের জন্য কাজ করতে পারে আমরা দেশে থেকে কেন পারবনা দেশের জন্য কিছু করতে।চলুন আমরা সবাই মিলে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন গড়ে তুলি।সবার মধ্যে এই ব্যাপারে জনসচেতনতা সৃষ্টি করি।

আমরা সবাই জানি টিপাইমুখ বাধ আমাদের দেশের কি ক্ষতি করছে।এটি বন্ধে আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

টিপাইমুখ বন্ধে জাতিসংঘের হস্তক্ষেপের জন্য দরকার ছিল ১ লক্ষ সাইন ইতিমধ্যে সংগৃহীত হয়েছে প্রায় ৩৮০০০ হাজার সাইন।বিশ্ব দরবারে এই ইস্যুটা তুলতে এখন ও আমাদের প্রয়োজন ৪২০০০ সাইন।আর সাইন করতে হবে আমাদের।

আসুন এই লিঙ্কে যান ~ http://chn.ge/sSklHz একটি সাইন করুন আর দেশের স্বাথ’ রক্ষায় এগিয়ে আসুন।

সাইন করার নিয়ম:
First Name, Last Name, Email, Address, City এই ঘরগুলো পূরণ করুন। State ঘরে পাশে Outside U.S. এ ক্লিক করুন। দেখবেন State শব্দটি পরিবর্তিত হয়ে Country হয়েছে। এইবা……র সেখান থেকে Bangladesh সিলেক্ট করুন। Post Code এ আপনার এলাকার পোস্ট কোড দিন। যারা পোস্ট কোড জানেন না তারা ঢাকার পোস্ট কোড ১০০০ দিয়ে ঘরটি পূরণ করুন। তারপর Sign এ ক্লিক করে পিটিশনে সাইন শেষ করুন।