ক্যাটেগরিঃ প্রকৃতি-পরিবেশ

১১•১১•১১ তারিখ ছিল প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনে ভোট দেয়ার শেষ দিন। ওইদিন রাতেই জানানো হয় তালিকাতে কোন সাতটি স্থান পেয়েছে। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে এদের নাম ঘোষণা হবে আগামী বছরের ফেব্রুয়ারী মাসে। প্রথম সাতে স্থান করে নিতে ব্যর্থ হয়েছে সুন্দরবন। প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্যে শীর্ষে থাকা সাতটি স্থান নিয়ে আমার ধারাবাহিক সাতটি পর্বের ১ম পর্ব আজ। ১ম পর্বে থাকছে তালিকায় ১নং এ স্থান করে নেওয়া আমাজন নদী ও বন।

প্রতি সপ্তাহে থাকবে এক একটি পর্ব যাতে থাকবে ঐ স্থান সম্পর্কে যাবতীয় তত্ত্ব ও ছবি।

প্রথমেই আমরা জেনে নেই প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনের ইতিবৃত্ত।

সুইস বংশোদ্ভুত কানাডার নাগরিক বার্নার্ড ওয়েভার প্রতিষ্ঠা করেন ‘দ্যা নিউ সেভেন ওয়ান্ডার্স ফাউন্ডেশন’। বার্নার্ড ওয়েবার নতুন সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনের সংগঠন প্রতিষ্ঠা করলেও এর সঙ্গে সুইস সরকারের কোন সম্পর্ক নেই। ২০০১ সালে পৃথিবীর মানবসৃষ্ট নতুন সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনের জন্য সংগঠনটি নির্বাচনের ঘোষণা দিয়ে প্রতিযোগিতার আহ্বান করে। ফল ঘোষণা হয় ২০০৭ সালে। এ সময় সংগঠনটি দাবী করে তারা প্রায় ১০ কোটি এসএমএস ও ইন্টারনেটের মাধ্যমে ভোট পেয়েছে। এবার প্রতিষ্ঠানটি প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনের উদ্যোগ নেয়।

পৃথিবীর ২২০টি দেশ থেকে ৪৪০টি স্থান প্রাথমিকভাবে প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। কিন্তু এ দৌড়ে শেষ পর্যন্ত শীর্ষে টিকে থাকে ৭৭টি স্থান। এরপর সেখান থেকে ২৮টি স্থান অংশ নেয় চূড়ান্ত পর্বে। ইন্টারনেট ও মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রায় ১০০ মিলিয়ন ভোট চূড়ান্ত করে তালিকাটি করা হয়। তবে চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা হবে ২০১২ সালের ফেব্রুয়ারীর মধ্যে। তবে এ নির্বাচনের সার্বিক দিক নিয়েই সমালোচনার মুখে পড়েছে কর্তৃপক্ষ।

এখন আমরা জেনে নিই আমাজন নদী ও বন নিয়ে বিস্তারিত।

দক্ষিন আমেরিকার ব্রাজিল, ভেনিজুয়েলা, কলম্বিয়া, ইকুয়েডরসহ মোট সাত দেশে অবস্থিত আমাজন নদী ও বন। প্রায় ৫৫ লাখ বর্গকিলোমিটার এলাকা জুড়ে আছে এটি। তবে ব্রাজিলের ৬০ শতাংশ নিচে আমাজন নদী ও বন সম্পর্কে আলাদাভাবে তথ্য উপস্থাপন করা হল।

আমাজন নদীঃ

১। আমাজন নদী বিশ্বের যে কোন নদীর চেয়ে বেশি জল বহন করে। মূলত, মহাসাগরে পতিত Fresh জলের প্রায় ১ পঞ্চমাংশ যা শতকরা ২০ ভাগ বহন করে আমাজন নদী।

২। আফ্রিকার নীল নদের পর আমাজন হচ্ছে বিশ্বের দীর্ঘতম নদী। এর দৈর্ঘ প্রায় ৪০০০ মাইল বা ৬৪০০ কিলোমিটার। ২০০৭ সালের জুলাইয়ে কিছু বিজ্ঞানী গবেষনা করে বের করেন আমাজন নীল নদের চেয়ে দৈর্ঘে বড়। যদি তাই হয়ে থাকে তাহলে আমাজন হবে বিশ্বের দীর্ঘতম নদী। এর প্রস্থ প্রায় ১•৫-১০ কিলোমিটার বন্যার সময় তা ৩০ কিলোমিটারও ছাড়িয়ে যায়।

৩। আমাজন নদীর বৃহত্তম ওয়াটারসেড (জমির যে অঞ্চল নদীর দিকে বয়ে চলে) রয়েছে। আমাজনের ট্রিবিউটারিজের সংখ্যা ২০০ এর অধিক।

৪। আমাজন নদী আন্দিজ পর্বত থেকে উৎপত্তি লাভ করে।

৫। আমাজন নদীতে বিচিত্র রকমের মাছ পাওয়া যায়। এখানে ৪•৫ মিটারের চেয়েও লম্বা ‘ফ্রেশ ওয়াটার ফিশ, বুল শার্ক, বিপুল পরিমাণ পিরানহা, ক্যাট ফিশ, ইলেকট্রিক ইলসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ পাওয়া যায়।

আমাজন বনঃ

প্রায় ৫৫০০০০০ বর্গ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে অবস্থিত। আমাজন বনের প্রায় শতকরা ৬০ ভাগ ব্রাজিলে অবস্থিত, ১৩ ভাগ পেরুতে অবস্থিত, বাকি অংশ অন্যান্য দেশে অবস্থিত।

আমাজন এরিয়াতে প্রায় ৩০০ উপজাতি গোষ্ঠী বাস করে যার মধ্যে প্রায় ৭০ উপজাতি গোষ্ঠীর বহির্বিশ্বের সাথে যোগাযোগ আছে। ২০০০০০ লাখেরও বেশি লোক এই অঞ্চলে বসবাস করে।

এখানে বসবাসরত লোকেদের মধ্যে প্রায় বেশিরভাগই ব্রাজিলিয়ান ভাষায় কথা বলে। এছাড়া অনেকেই স্প্যানিশ ভাষায়ও কথা বলে। তাদের অনেকের নিজস্ব ভাষাও রয়েছে।

আমাজনে প্রায় ৪৫ লাখ প্রজাতির পোকামাকড় আছে। এখানে হাজার প্রজাতির পাখি আছে যা সারা বিশ্বের প্রায় এক পঞ্চমাংশ। এছাড়া এখানে ৪২৮ প্রজাতির উভচর, ৩৭৮ প্রজাতির সরিসৃপ, ৪২৭ প্রজাতির স্তন্যপায়ী, ৩০০০ প্রজাতির মাছ বাস করে।

এই বন এনাকোন্ডা, শ্লথ, জাগোয়ার প্রভৃতির জন্য বিখ্যাত। বিপুল কার্বন ডাই অাইডকে অিজেনে রূপান্তর করে বলে এর একটি পরিবেশগত গুরুত্বও আছে।

তথ্যসুত্র: গুগল