ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

নাজমুজ্জামান নোমান
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পর্যাপ্ত চেয়ার, টেবিল ও আসবাবপত্রের অভাবে মেঝেতে বসে গত তিন মাস ধরে মানবেতর ক্লাস করছে আই,বি,এ অনুষদের শিক্ষার্থীরা। এতে তাদের উচ্চশিক্ষার কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে বলে জানা গেছে।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, ১ম বর্ষের মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থীদেরকে শ্রেণীকক্ষের মেঝেতে নিয়ে ক্লাস নিচ্ছেন বিভাগের লেকচারার বারতা চক্রবর্তী। একই দুর্ভোগের মাঝে রয়েছে ফিন্যান্স এন্ড ব্যাকিং ও আই,টি সহ নতুন অনুষদের বিভাগসমূহ।

ভর্তি হওয়ার সময় অবকাঠামো ক্ষাতে উন্নয়নের জন্য বিশাল অংকের টাকা নেওয়া হলেও শিক্ষার্থীরা অতি কষ্টে ক্লাস করতে হচ্ছে। নতুন ভবন নির্মানের ক্ষেত্রে প্রশাসন রয়েছে নিশ্চুপ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মার্কেটিং বিভাগের এক শিক্ষার্থী জানান, বিরতীহীন ভাবে চল্লিশ মিনিটের ক্লাস মেঝেতে বসে করা খুব কঠিন কাজ। এভাবে ক্লাস করে কিছু লেখাত দূরের কথা মনোযোগ দেয়া সম্ভব হয় না। শুধু মনে হয় ক্লাস কখন শেষ হবে।

এদিকে চলমান সমস্যার নিরশন না করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন নতুন দুটি অনুষদের অন্তর্ভূক্ত আরো চারটি বিভাগ খোলা হবে বলে গত বুধবার একাডেমিক কাউন্সিলের মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত নেয়।

মেঝেতে বসে ক্লাসের বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টার আবু বকর সিদ্দিক অস্বীকার করে বলেন এগুলো কোন নিউজের আইটেম হতে পারে না।

এ ব্যাপারে উক্ত অনুষদের ডিন ও প্রাক্তন উপাচার্য আব্দুল বায়েস বলেন সকল আসবাবপত্রের প্রস্তুতির কাজ শেষের পর্যায়ে। শিক্ষার্থীদেরকে সমাজবিজ্ঞান অনুষদে ক্লাস করার কথা বলা হয়েছে। কিন্তু মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর ও বোর্ড সংকটের জন্য শিক্ষার্থীরা সেখানে ক্লাস করছে না।