ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

 

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদালয় সংলগ্ন ঢাকা আরিচা মহাসড়কে চলাচলরত বাসে নিয়মিত প্রয়োজনীয় কাজে ঢাকা টু ক্যাম্পাস যাতায়াত করেন শতশত শিক্ষার্থী। দিন রাতের যে কোন সময়ে ছোট খাটো ঝামেলায় পরলেই নিজস্ব হলের ছাত্রলীগের নেতাদের মোবাইলে জানিয়ে দিয়ে মূহুর্তের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেইরি গেটে জড় করেন ২০-৩০ জন নেতা কর্মীদের। বাস এসে থামলেই অতর্কিত হামলায় তাদের হাতে থাকা লোহার রড, পাইপ ও লাঠি দিয়ে ভাংচুর করেন বাসের গ্লাস। কোন কোন বাসের ড্রাইভার, হেল্পারকেও মারধর করেন তারা। এসব ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কোন সঠিক বিচার করতে পারেনি, বরং বিষয়টি এড়িয়ে যেতে চায়।

সম্প্রতি সিএনজি গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির সাথে বাসের ভাড়া হঠাৎ করে অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি হওয়ায় ক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেছে ক্যাম্পাসের শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের বিবাদমান দুই পক্ষের কোন্দলে ভাড়া বৃদ্ধি ইস্যুটিতে ঢাকা আরিচা মহাসড়কের ৫ শতাধিক বাস বলির পাঠা হওয়ার আশঙ্কা করছে শিক্ষক শিক্ষার্থীরা। যে কোন মূহুর্তে বাস ভাংচুর ও অগ্নি সংযোগের ঘটনা ঘটতে পারে। তাই অবিলম্বে পূর্ব নির্ধারিত ভাড়া নেয়ার দাবি শিক্ষার্থীদের।

জানা যায়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে থেকে ঢাকা গামী বাসের ভাড়া শিক্ষার্থীদের জন্য ১০ টাকা নির্ধারণ করা রয়েছে। কিন্তু হঠাৎ করেই গত তিন চারদিন যাবৎ বাসের ভাড়া ১৫ টাকা করা হয়েছে। ভাড়া হ্রাসের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বাস মালিকদের সাথেও কোন যোগাযোগ করেনি। এতে ক্ষুদ্ধ হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে হানিফ, সুপার, বোরাক, গ্রীণওয়েসহ বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের ৫ শতাধিক বাস। বিশ্ববিদ্যালয়ে সম্প্রতি ছাত্রলীগের বিবাদমান দুই পক্ষের কোন্দলের ফলে, ক্যাম্পাসকে অস্থিতিশীল করতে ভাড়া বৃদ্ধিকে ইস্যু হিসেবে নিয়ে ঢাকা আড়িচা মহাসড়কের এই বাস গুলো ভাংচুর ও অগ্নি সংযোগ করতে পারে বলে ছাত্রলীগের একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

এ বিষয়ে সরকার ও রাজনীতি বিভাগের অধ্যাপক শামছুল আলম সেলিম বলেন, গভীর রাতে ছাত্রলীগ বিভন্ন ইস্যুতে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে বাস ভাংচুর করে আসছে। এবার ভাড়া বৃদ্ধিকে ইস্যু করে বাস ভাংচুর ও অগ্নি সংযোগের মাধ্যমে পরিকল্পিত ভাবে ক্যাম্পাসকে অস্থিতিশীল করতে পারে। বাস মালিকদেরকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য একটু কম লাভ করে ১০ টাকা ভাড়া রাখার অনুরোধ জানান তিনি।
বিশ্ববিদ্যালযের রেজিস্ট্রার আবু বকর সিদ্দিকি বলেন, আমাদের সাথে কোন যোগাযোগ ছাড়াই বাস মালিক কর্তৃপক্ষ ভাড়া বৃদ্ধি করেছে। এ বিষয়ে অবিলম্বে বাস মালিকদের সাথে যোগাযোগ করা হবে।