ক্যাটেগরিঃ দিবস প্রসঙ্গ

 

একটি বছর জগত হতে বিগত হওয়া মানেই জীবনের বয়স বাড়লো অারও এক বছর। এই করেই খসে পড়ার চক্রে পৃথিবীরও বুড়ো হওয়া। তবুও নতুন বর্ষে পা দেয়া নিয়ে তুমুল রঙে রঙিন ফানুস উড়িয়ে গানবাদ্যে হুল্লোড়ে মাতে সমগ্র বিশ্ব। বিশ্বের সকল দেশেই ইংরেজী তারিখ এর অগ্রাধিকার। তাই আমরা ইংরেজি নববর্ষকে স্বাগত জানাই।

বিগত হওয়া ২০১৪ সালটি বাংলাদেশে অনেক ঘটনাবহুল। অনাকাঙ্ক্ষিত বিস্তর দুঃখজনক ঘটনা জনজীবনকে বিপর্যয়ের শিকার বানিয়ে দুর্বিষহ করেছে। নজিরবিহীন ভাবে পেট্রোল বোমায় পুড়িয়ে পথচারী মানুষ, বাসযাত্রী মানুষ পোড়ানোর সে এক দুঃসহ খবরভর্তি বাংলাদেশ। ২০১৪ অপরাজনীতির জ্বলন্ত নমুনা বাংলাদেশ। এমন কি হরতালের নামে বিবেকহীনতার চরমতম নমুনা হয়েছে প্রিয় বাংলাদেশ। গরুভর্তি ট্রাকের নিরীহ গরুদেরকে বোমায় পোড়ানো সত্যি অচিন্ত্যনীয়। কি অন্যায়ভাবে পথের দুধারের পুরনো ছায়াবতী বৃক্ষের নির্বিচারে উপড়ে ফেলা, রেললাইন উপড়ানো, হেফাজতের নৈরাজ্যের পরিকল্পনা – ইত্যাদি জনজীবনের নিরাপত্তার হুমকি হিসেবে বিশ্বে চিহ্নত, নিন্দিত বাংলাদেশ, ২০১৪ সালের অপরাজনীতির নমুনা। এত কিছুর মূলে যুদ্ধাপরাধীর বিচার বানচালের দেশি / বিদেশি ষড়যন্ত্র।

যাহোক, তারপরেও বাংলাদেশ এগিয়েছে। এবঙ বহির্বিশ্বে নিজের অগ্রসরমানতার নজির অাজ বাংলাদেশ। একেএকে যুদ্ধাপরাধীর বিচারিক রায়ও হচ্ছে। স্বাধীনতার তেতাল্লিশ বছর পেরিয়েছে বাংলাদেশ। সালতামামীর হিসেবে বিশ্বের অপরাপর দেশের চাইতে কিছুমাত্র কম না – অগ্রসরমানতায় আজকের এ বাংলাদেশ, এ সত্য অামাদেরকে গর্বিত করে। বিগত বহুবিধ প্রতিবন্ধকতা ও ষড়যন্ত্র মোকাবিলায় দক্ষতার উদাহরণ অাজ বাংলাদেশ। সঙ্কট কাটানোর নিকট অতীতে এমন আর উদাহরণ নেই বাংলাদেশে বিগত  সরকারের কর্মকান্ডে। অামরা অাশাবাদী বাংলাদেশের জনগণ – অচিরে অামাদের বাংলাদেশ “সোনার বাংলা” রূপে প্রাণের ‘৭১-এর অাদর্শ বাংলাদেশ হবেই ইনশাহ অাল্লাহ। দ্বিতীয়বারের মতো জাতিসংঘের “সাউথ-সাউথ কো-অপারেশন ভিশনারি অ্যাওয়ার্ড এ ভূষিত হয়েছে বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুকন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইউনেস্কোর “শান্তির বৃক্ষ” (ট্রি অফ পিস) স্মারক অর্জন করায় বিশ্বে বাংলাদেশের ইমেজ বেশ বেড়েছে।

কয়েক ঘন্টা গেলেই ক্যালেন্ডারের তারিখে ২০১৪ পাল্টে ২০১৫ হবে। প্রার্থনা – ২০১৪-র যত জঞ্জাল , আবর্জনা, অশনিজাল ভেদ করেই জগতে নতুন ভোরের আলোক লয়ে নতুন বর্ষ ২০১৫ হোক সকল দেশের, দশের আশাময় একটি হানাহানিমুক্ত, উগ্রতামুক্ত, ধর্ষকাম, পশুত্বমুক্ত সম্ভাবনার বছর। মানবিক বিবেকবান কর্মময়তার বছর। বিশ্বের সকল মানুষের সমানাধিকারের বছর হোক ২০১৫। মূর্খতার অবসানের আনন্দবার্তাবাহী বছর হোক। এমন অাশাবাদ, চাওয়া রেখে প্রবেশ করছি নতুন বর্ষ আসন্ন লগ্নে – ২০১৫ তে। সুস্বাগতম ২০১৫।

image

* বর্ষ শেষের শুভকামনায় উৎসর্গিত *
৩১ শে ডিসেম্বর। ২০১৪ ইং।