ক্যাটেগরিঃ স্বাধিকার চেতনা

এবারের বিজয় আমাদের নতুন বিজয়ের মতোন আনন্দদায়ক এক বিজয়বার্তা এনেছে। কারণ আমরা আজ অনেক দূর এগিয়ে গেছি বাংলাদেশের জনক- এর স্বপ্ন পূরণ-এর পথের দিকে। তাঁরই সুযোগ্য কন্যা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশ পরিচালনায় বিচক্ষণতা দেখাতে পেরেছেন বলেই আজ বাংলাদেশ বিশ্বে অনেক দেশের নজরকাড়া দেশ হিসেবে উচ্চারিত একটি দেশ। দেশে-বিদেশে উদাহরণযোগ্য বাংলাদেশ আজকের বাংলাদেশ। দীর্ঘ কালের জাতীয় কলঙ্ক মোচন করে বাংলাদেশ আইনতঃ যুদ্ধাপরাধীদের দণ্ডাদেশ কার্যকর করার মাধ্যমে বিশেষ দক্ষতা দেখাতে সক্ষম হয়েছে বঙ্গবন্ধুকন্যার শাসনামলে। তিনি বিশেষভাবে প্রশংসিত এখন বিশ্ব নেতৃত্বের সারিতে। এই বিজয় মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাব্রীজের নির্মাণকাজের উদ্বোধন করেছেন। আমরা গর্বিত না হয়ে পারি?

অথচ তবু, যাদের গাত্রদাহ এমন দিনে – তারা যে পাকিস্তানের দোসর, এই দেশেই বসবাস করার সুযোগ পেয়েও ঘৃণ্য বাংলাদেশী নামধারী, হিংসাবিষে কাতর নিন্দুক এবঙ দেশবিরোধী – তাদের আজ চিহ্নিত ও বর্জন করবার সময় হয়েছে। খবরে প্রকাশ – পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। এবঙ দাবী উঠেছে – সার্ক সহ সকল বিশ্ব সংগঠন হতে পাকিস্তান কে বহিষ্কারের। এমন দাবী আমরা সমর্থন করছি আজ। যদিও ধর্মান্ধরা আজও থাবা বাড়িয়ে হত্যা করছে মানুষ, তবুও আশাবাদ – এদেশে ধর্মান্ধরা শুভবোধের চেতনার নিকট হার মানবে। এই যে বিজয় দিনে সর্বস্তরের মানুষ স্মৃতিসৌধে ফুলেল শুভেচ্ছা জানায় ঢলনামা সে ছবি হৃদয় জাগায় বড়ো।

বাংলাদেশ আজ সফলতার পথে একাত্তুরের মানবতাবিরোধী যুদ্ধাপরাধীদের ঘৃণ্য অপরাধের বিচার আইনানুগভাবে কার্যকর করার শক্ত মাটিতে দাঁড়াতে পারার অবস্থানে মাইলফলক রচেছে। এবারের বিজয় মাসে বাংলাদেশ অর্জনের বিশেষ দাবীদার। এবঙ যুদ্ধপরাধীদের দণ্ডাদেশ দেয়াতে কোটি -কোটি জনগণের আবেগ-অনুভুতির মূল্যায়ন হবার একটি উদারহণ রচনা করার গৌরবজনক ভিত্তিমূলে দাঁড়িয়ে আজকের বাংলাদেশ। আজ স্মরণ করি সকল স্মরণার্হ শহীদ বুদ্ধিজীবিদের, সকল শহীদ ভাই ও মুক্তিযোদ্ধা এবঙ বীরাঙ্গনাদের অপরসীম আত্মত্যাগের স্মৃতি। তাঁদের তরে, বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী নেতৃত্ব ও আত্মত্যাগের তরে হৃদয় হতে জানাই রক্তলাল সালাম। আমরা বাঙালি জাতি বাংলাদেশের বিজয় দিনটিকে পরম শ্রদ্ধায়, ভালোবাসায় নিবেদন করতে জানি হৃদয় হতে গভীর ভালোবাসাময় স্বাধীনতার লাল গোলাপ দিয়ে রাঙানো প্রেম। যে প্রেমে লাল সবুজ পতাকা ওড়ে। হৃদয় হতে হৃদয়ে ছড়িয়ে আকাশতল আলোকিত রক্তলাল সূর্যালোকে জানান দেয় – এইতো এলো বিজয় দিন – বাংলাদেশের লাল-সবুজে উড্ডীন। আমার হৃদয় লিখতে চায় বিজয় দিনে হৃদয় দিয়ে ধমনীবাহিত লোহিত কণা নিঃশেষে ভাসিয়ে দিয়ে একটি গানের লাইন বাংলা মায়ের তরে –

“বাংলা, বাংলা মাগো রেখেছো চরণতলে
আজি এ বিজয়দিনে স্মরি তোমায় সহস্র রক্তজলে”।।

bangladesh apps

*১৬-ই ডিসেম্বর বাংলাদেশের বিজয় দিবস স্মরণে*

১৫-ই ডিসেম্বর। ২০১৫ সাল।
ঢাকা। বাংলাদেশ।