ক্যাটেগরিঃ নাগরিক মত-অমত

 

এদেশে মাঝেমাঝেই এমন অভাবিত ঘটনাবলী ঘটে যেন বা মনুষ্য বিবেক মারা পড়েছে। তুচ্ছতিতুচ্ছ বিষয় হয় মারদাঙ্গাময়। খুনোখুনিও ঘটায় বিষয়টিকে কেন্দ্র করেই। ধর্ম হয়না বর্ম তখন। ধর্মান্ধতা ঝাঁপিয়ে পড়ে ছুতোনাতাকে হাতিয়ার বানিয়ে। খোলা জানলাতলে দাঁড়ানো নিরীহ কাব্যপ্রিয় হৃদয় কেঁদে মরিয়া হলেও কোনও হিতকর ঘটেনা কিছু। বিবেকবান প্রতিবাদে মুখর হলেও আসে না সমাধান। সহজ শ্যামল বাতাস মুহূর্তে বিষিয়ে গলগলে বিষাদচিত্র। মানুষগুলো দেখতেও পোশাকে-আলখাল্লায় এদেশী নয় এমন ! অথচ, এদেশী ওরা ! যেসব প্রতিষ্ঠানে ওদের শিক্ষাদীক্ষা সেথায় বিবেক জাগানো শিক্ষা দেওয়া হয় কি হয় না – বিষয়টি নিয়েও বিস্তর লেখালেখি ও আলোচনা-সমালোচনার ঝড় উঠেছে বহু। তাতেও কাজ হয়নি কিছু আজও।

 

খোলা জানলাতলে ...

 

খোলা জানলাতলে নির্মল শ্যামল হাওয়া ওরা কতটা উপভোগ করতে পায় জানি না। যাতে দেশের প্রতি, দেশীয় ঐতিহ্যের প্রতি হৃদয়জাত বিবেকবোধে জারিত হয়ে ওরাও জাতীয় বাঙালি বোধসম্পন্ন মানুষ হয় – এমন চাওয়া আমার। অন্যায় চাওয়া নিশ্চয় না। আজ সময় হয়েছে সরকারের বিষয়টি জরুরীভাবে নিয়ে ওদের দায়িত্ব নেবার। যেহেতু ওরাও এই দেশের নাগরিক। পোশাকে ওদের বাঙালি বলে চিনতে কষ্ট না হোক আর। আসল কথাটি এই যে – দোষ ওদের শিক্ষাদীক্ষায়। ওদের জন্য জাতীয় শিক্ষা ও চেতনাবোধ জাগানো শিক্ষাব্যবস্থা জরুরী। তবেই হয়তো একদিন ওরাও খোলা জানলাতলে দাঁড়িয়ে দেশীয় শ্যামল বাতাসে হবে বিবেকবান।

কেন যে কবিতা আসে যখন খোলা জানলাতলে সামান্য হলেও সবুজ বাতাস আসে … কবিতা হয়তো না। কেবল ভাব জাগানো কথামালা … কবিগুরু যা হাজারে-হাজার লিখেও ক্লান্ত হননি মুত্যু অবধি। শামসুর রাহমান দুচোখে গ্লুকোমা নিয়েও রোজ কয়েকখানা কাব্য না লিখে ঘুমোন নি। তো, আমি তাঁদের ভেবেই মাঝেমাঝে ভাবতাড়িত কিছু লিখতে চাই – হাজার সমস্যা-সংকটের মাঝারে। তারই কয়েক লাইন দিলাম জুড়ে আমার এ লেখায়।

অজানা, জেগে আছো তো?
নুরুন্নাহার শিরীন।।
*************
জানিনা কেমন তুমি কোন অজানায় থাকো … আমার ঝিমিয়ে পড়া অস্থিমজ্জা
উপেক্ষা করেই ডাকো।
আমি তো দেখি না তুমি মেঘরঙ ডানা মেলে –
কি চিরকুটে কি লিখে রাতভর তারা জ্বেলে –
জগত মাঠের পারে ভোরের আলোকবাতি –
ঠিকঠাক পাঠিয়েছো কি না খুঁজি আঁতিপাতি।
আমার ঘরের পাশে পড়শি অচিন অতি –
তোমার পালক খসে পড়ার সে কোন অভিরতি !
তবে সে থাকুক তবে
তোমারই অজানিত অনুভবে …
আমিই কেবল শত ভাবের ভিতর মৃত কলরবে !
তোমার ডানার গন্ধে প্রাণান্ত ঘুমের দেশে –
রক্তের এস্রাজ বেজে উঠলেই প্রতীক্ষা ফুরোবে অবশেষে …
তোমার অজানা প্রেম এসে
বসবে পাখির মতো –
অসীম ছায়ার গান
পাখির নীড়ের মতো !

#

জানুয়ারী। ২০১৬ সাল।
ঢাকা। বাংলাদেশ