ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

আমার ঘনিষ্ঠ স্বজন মুক্তিযোদ্ধা মীর মোশতাক আহমেদ রবি (নৌ-কমান্ড) গতকাল আমাকে তাঁর লিখিত একখানা চিঠির কপি দিয়েছেন যাতে তা পত্রিকায় পাবলিশ-এর উদ্যোগ নিই। তো, পাঠের পর আমি আমার বিডি-নিউজ-ব্লগ-এ প্রকাশ করাকেই ভালো ভেবে হুবহু কপি করছিঃ

প্রিয় নেত্রী ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,

বাংলাদেশে দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহনের পর গত প্রায় আড়াই বছরে আপনি অঙ্গীকার মতো অনেক পদক্ষেপ নিয়েছেন যা অনেক ক্ষেত্রেই প্রশংসার দাবীদার। বিশেষতঃ বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার রায় কার্যকর, বিডিআর বিদ্রোহ দমন, জঙ্গী নির্মূল-এ কার্যকরি পদক্ষেপ এবঙ যুদ্ধাপরাধীদের বিচারিক প্রক্রিয়ায় আননয়ন। কিন্তু, শেয়ার বাজারে ধস সহ আপনার প্রশাসনিক জটিলতায় প্রায় সর্ব সেকশনেই প্রমোশন ও পোস্টিং-এর ক্ষেত্রে জন-অসন্তোষ বাড়ছে। যদিও আপনার ওয়াদা অনুযায়ী প্রচুর নিয়োগ দেওয়া হয়েছে, হচ্ছে বিভিন্ন সংস্থায়, কার্যতঃ খোঁজ নিলেই জানা সম্ভব যে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের মানুষের চাকুরী ক’জনের হয়েছে আর নিয়োগ-বাণিজ্যের মাধ্যমে কত অযোগ্যদের চাকুরী হয়েছে। দেশ সঠিক পরিচালনা করা যে কঠিন গুরুভার তা জেনেও বলছি রাগ-অভিমান-ইমোশন নয় আরও অনেক ক্ষেত্রেই আপনার কঠোর উদ্যোগের প্রয়োজন। ২০০১-এ ষড়যন্ত্র করে যারা আপনাকে ও আপনার দলকে নির্বাচনে হারিয়েছিলো তাদের অনেকেই আজ আবার কম-বেশি আপনার নিকট অবস্থান করে নিয়েছে। যারা আদতেই বঙ্গবন্ধুর ভাষায়ঃ চাটার দল। যারা চাটুবিদ্যায় সব ম্যানেজ করে সুযোগ গ্রহনের দ্বারা দলকে ক্ষতিগ্রস্ত করে আখের গুছিয়ে নিয়ে রঙ বদলাতে মোটেও দ্বিধাবোধ করেনা। একারণেই আমরা সবিশেষ শঙ্কিত। যাদের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়তই লেখালিখি হচ্ছে তারা যদি সব ফেরেস্তা হয় তাহলে যারা লিখছে তারা সব শত্রুতা করছে এমন ভাবা নিশ্চয় ভুল। ২০১৪ সাল-এর টার্গেট আপনার মাথায় থাকলে সকল ভুল সংশোধনের মধ্য দিয়ে আগামী ২ বছর আপনার সরকারের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করা না গেলে বঙ্গবন্ধুর ‘সোনার বাংলা’ স্বপ্নপূরণ-এর লক্ষ্যের দিকে যাবেনা বাংলাদেশ। আপনিতো বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেই জাতি আপনাকে অনেক বড় চিন্তা-চেতনার ধারক-বাহক-লালনকারী রূপে দেখতে চায়। আমার ব্যক্তিগত ধারণা (ভুল হলে মার্জনা করবেন) যখন আপনি ক্ষমতা-র বাইরের মানুষ তখন আপনি বড় মনের সহজ মানুষ। কিন্তু ক্ষমতাসীন অবস্থানে আপনি ব্যক্তি-হাসিনা-র বড়ত্ব থেকে আলাদা হয়ে পড়েন যা আমাদের কাম্য না, আমাদের মতো অনেকেই আহত হই।

আজ এদেশে বঙ্গবন্ধু নাই দৃঢ়চিত্তের চরিত্রবান সোনার মানুষের অভাবে ‘সোনার বাংলা’ পিতলেরও লাগেনা যেন। আপনার আওয়ামীলীগেরই কারও-কারও নীতি এমন যেন বিএনপি করেছে/করেছিলো এখন আমরাদেরও করার সময় এটি ভয়ঙ্কর পরিণতি ডেকে আনার মতো। আমাদেরতো এখন প্রতিটি ক্ষেত্রেই বিএনপি-র চেয়ে যোগ্যতার প্রমাণ দেয়ার সময়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আপনি আপনার পদের যথাযোগ্য সর্বোচচ ব্যবহার করুন, দেশ বাঁচান, কাউকে ছাড় দেবেন না, আপনার আমলা-মন্ত্রী-উপমন্ত্রী-সাংসদ প্রত্যেককে জবাবদিহিতার আওতায় নিয়ে আসুন। সবাই রাষ্ট্রনায়ক হতে পারেনা। যদ্দুর আপনাকে জানি আপনি একমাত্র আল্লাহ ছাড়া কাউকে পরোয়া করেন না, তাহলে আপনার ভয় কি ? জনমানুষের/হিতাকাঙ্ক্ষীদের গঠনমূলক সমালোচনাকে প্রাধান্য দিয়ে সর্বক্ষেত্রে আপনার কমান্ড ও কন্ট্রোল প্রয়োগ করুন। জাতির আস্থায় থাকুন।

জাতির পিতা ও লক্ষ শহীদের আত্মার শান্তির লক্ষ্যে পৌঁছে যান এই শুভকামনায় শেষ করছি। জয়বাংলা। জয় বঙ্গবন্ধু। বাংলাদেশ চিরজীবি হউক।

২৬-১০-২০১১