ক্যাটেগরিঃ স্বাধিকার চেতনা

 

১৯২২ সাল ২৭ জানুয়ারী বৃটিশবিরোধী অহিংস-অসহযোগ ও খেলাফত আন্দোলন-উত্তালকালে উত্তরবঙ্গের সুবিখ্যাত বাণিজ্য কেন্দ্র সিরাজগঞ্জের সালঙ্গা হাটে বৃটিশবাহিনী ইতিহাসের এক বর্বরতম হামলায় হত্যা করে হাজার-হাজার মানুষ। স্বাধিকার চেতনায় উজ্জীবিত হবার দায়ে একসঙ্গে এত মানুষ হত্যার ঘটনা ইতিহাসে বিরল।

সেদিন সালঙ্গার হাটে মুক্তিকামী মানুষের নেতৃত্বে ছিলেন দশম শ্রেণীর ছাত্র আব্দুর রশিদ। সেদিনের সেই কিশোর নেতাই পরে জাতীয় নেতা মাওলানা আব্দুর রশিদ তর্কবাগিশ উপাধিতে ভূষিত হন। সেদিন তিনি সালঙ্গা হাটে বিদেশী পণ্য বর্জন-এর আন্দোলনে নেতৃত্বের জন্য বৃটিশবাহিনীর চরম নির্যাতনের শিকার হয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় বন্দী হন।

বৃটিশদের এই হত্যাযজ্ঞ সেই সময়ের সবচে’ নিষ্ঠুরতম বলেই চিহ্নিত আজও। কথিত যে ততকালীন জালানওয়ালাবাগ হত্যাকান্ডেও এত মানুষের মৃত্যু হয়নি। যদিও কাগজে-কলমে চার হাজার মানুষের আনুমানিক হিসেব পাওয়া যায়, কিন্তু, আদতে নাকি সালঙ্গা হাটে সেদিন দশ হাজার মানুষকে হত্যা করেছিলো বৃটিশবাহিনী।

সেদিন অগণিত লাশের গণকবর দেয়া হয় সিরাজগঞ্জের রহমতগঞ্জে। আজ সেই রক্তক্ষরা ঐতিহাসিক দিনের স্মরণে মাওলানা তর্কবাগিশ আর অগণিত শহীদ-এর আত্মার প্রতি লাল সালাম জানাই। জানাই হৃদয়াবনত শ্রদ্ধাঞ্জলি।
২৭ জানুয়ারী ২০১২ইং