ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

 

“ইলিশ খাই আর না খাই, আজ ১লা বৈশাখ- পান্তা খাই না খাই, আমি বাঙ্গালি আর ইলিশ খেলাম না বটে, তবে ইলিশের “শ্রাদ্ধ” বা “ইলিশের আমসত্ব” করলে কেমন হয়?

‎”এক কেজি ইলিশ দুই মণ ধানে” —————————————— শায়েস্তা খাঁ এর আমলে ১ টাকায় ৪০ মন ধান পাওয়া যেত, আমার শৈশব-কৈশরে এই বাক্যটি পড়তে যে কি ভাল লাগত-আর ভাবতাম- “আহা দিন গুলো কি সুখেরই না ছিল” (যদিও আমার কাছে এটা কে একটা ইংরজি শব্দ “Perfect Misnomer” মনে হয় এখন, এরকমই একবিংশ শতাব্দী র একটা “মিশনমের” কিন্তু প্রথম আলোর ওই নিউজ হেডিং টি ) কিন্ত শৈশব-কৈশরে কখনই উপলব্ধি করতে পারিনি যে ওই ১ টাকা আয় করতে কত পরিশ্রম করতে না হতো সে সময়ে । আজ প্রথম আলোর সর্বশেষ নিউজ হেডিং এ দেখলাম “এক কেজি ইলিশ দুই মণ ধানে”। আর হটাত কবিগুরুর “শতবর্ষ” কবিতার কথা মনে পড়ে গেল, ” আজি হতে শতবর্ষ পরে কে বসে পরিছ- “এক কেজি ইলিশ দুই মণ ধানে” এই নিউজ হেডিং খানি ” ।

আজ হতে ১০০ বছর পরে, তারা (আমাদেরই অনাগত বংশধরেরা) কি আমারই মত ভুল করতে পারে এই ভেবে যে আমরা কি সুখেই না আছি – একজন জেলে মাত্র ১ টা ইলিশ বিক্রি করেই পুরো মাসের খাবার (মোটা ভাত) এর বন্দোবস্ত করতে পারে ! “কিন্ত আমাদের সেই অনাগত বংশধরেরা কি তখন উপলব্ধি করতে পারবে যে, “এক কেজি ইলিশ” কিনতে একজন মধবিত্তের ১ সপ্তাহের বেতন বা তার ও বেশি গুনতে হয়, অবশ্য যদি না সে পুলিশ, রাজনিতিবিদ, চোরাকারবারি, ঘুষখোর, সুদখোর, অসৎ (অপ) ব্যাবসায়ি, ছাত্রনেতা বা “যুবক বা ডেসটিনি” র কর্ণধার বা তাদের পুত্র/কন্যা হন । ।

ও হ্যা, আপনি কি জানেন যে – আমি ১লা বৈশাখে কখন ও ইলিশ খাই না, কেউ আপ্যায়ন/নিমন্ত্রন করলেও না, আজ ও না । আমার আজও মনে পরে, তখন বুয়েটে সবে ভর্তি হয়েছি- আর এল ১লা বৈশাখ অনেকের মতই আমরা ও রমনা বটমূল-পাবলিক লাইব্রেরি-চারুকলা তে ঘুরে বেড়ালাম, তবে ব্যাতিক্রম ছিল এই যে আমি ইলিশ-পান্তা খাবনা সংকল্পে অটল ছিলাম- আর বলেছিলাম ” ইলিশ খাই আর না খাই- আজ ১লা বৈশাখ – পান্তা খাই না খাই আমি বাঙ্গালি “। দিনটা ভাল ভাবে কাটলেও বিকাল থেকেই আমার ঈশান কোনে উকি দিতে শুরু করল রক্তিম আভা – বুঝলাম যে অচিরেই রয়েছে দুর্যোগের ঘনঘটা, আর মনে মনে জপিলাম “কাণ্ডারি তোমার দেখিব আজিকে বাঙ্গালি-মুক্তিপণ ” শেষ বিকালটা খুব সুখকর ছিলনা, তাই বার বার মনে পরে গেল ” এত দেরি কেন পাঞ্জেরী ” কালবৈশাখী হানা দেওয়ার আগেই তাই সিদ্ধান্ত নিলাম ” ইলিশ খেলাম না বটে, তবে ইলিশের “শ্রাদ্ধ” বা “ইলিশের আমসত্ব” করলে কেমন হয় । যেমন ভাবা তেমন কাজ – তাই বটমুল থেকে একসাথে ফেরার সময় ওই ইলিশ বাজেট এর ৫০০ টাকা “পথকলি ট্রাষ্টে” donate করেছিলাম। আমার সেই মূর্খতা দেখে আমার X ‘ ত আমাকে প্রায় Y করে ফেলেছিল আর বলেছিল আমি নাকি একটা “খাটাস” । আমার ত মনে হয় আমি খাটাস, কিন্তু আপনি?

সবাইকে নববর্ষের অগ্রিম শুভেচছা রইল ।