ক্যাটেগরিঃ সাম্প্রতিক

দেশের দুটি বড় রাজনৈতিক দলই বুর্জোয়া। তাদের মনকষাষিতে মানুষ অতিষ্ট। তিনি বিএনপিকে আশা আকাঙ্খার একটি দল বলে বলে মন্তব্য করেছেন ভাষা সৈনিক আবদুল মতিন।
গতকাল রোববার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বিএনপি আয়োজিত শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ভাষা সৈনিক আবদুল মতিন বলেন, বিএনপি দেশের একটি আশা আকাঙ্খাকার পার্টি। আরো পার্টি আছে তারাও আশা করে। আপনারা যে ভূমিকা পালন করছেন তা মানুষ জানে। এই ভূমিকা বহু দিনের। আপনারা দুটি পার্টি বহুদিন এই ভূমিকা পালন করছেন। জনগণ মনে করছে দুই এক বছরের ব্যবধানে একটি নির্বাচন হবে। নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের মানুষ প্রত্যাশা করছে একটি ভালো সরকার। তিনি বলেন, আপনারা ও আওয়ামী লীগ বুর্জোয়া দল। আপনাদের মন কষাকষিতে মানুষ অতিষ্ট ও অস্থির হয়ে গেছে। কোনো দিক নির্দেশনা করতে পারছে না। তিনি বলেন, বড় জটিল বড় কঠিন বাংলাদেশের রাজনীতি। সোভিয়েত ও চীনের রাজনীতির থেকে কম না। পৃথিবীতে আপনারা শান্তি দিতে পারেন নাই। মানুষ বুর্জোয়াদের পছন্দ করে না। তাই বুর্জোয়াদের কাছ মানুষ আর কিছু আশা করছে না।

বিশ্বে বুর্জোয়াদের মধ্যে যুদ্ধ বেধে যাবে। এতে বাংলাদেশের মতো ছোট রাষ্ট্রের জন্যও খারাপ পরিস্থিতি হতে পারে। আবদুল মতিন বলেন, আপনাদের কাছে মানুষ যা প্রত্যাশা করছে তা করার চেষ্টা করবেন। দুই বুর্জোয়া পার্টি কেনো ব্যর্থ হলো। আমরা কমিউনিস্টরা কেনো ব্যর্থ হলাম। আমরা মানুষকে ভুলে যাই। আপনারা দেশটাকে ভালো করে গড়ে তুলুন। একটা শান্তির মধ্যে থেকে আপনারা যদি পৃথিবীটাকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারতেন ভালো হতো।