ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান আবারো উচ্চ আদালত শাস্তিপ্রাপ্ত আরেকজন খুনী ছাত্রলীগ নেতাকে ক্ষমা প্রদর্শন করে মুক্ত করে দিয়েছেন!

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও আইনজীবী আবদুর রাজ্জাক হত্যা মামলার প্রধান আসামি ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আহসান হাবীব ওরফে টিটু। নয় বছর আগে এক রায়ে আদালত তাঁকে মৃত্যুদণ্ড দেন। সে সময় টিটু ছিলেন পলাতক। বর্তমান সরকার ক্ষমতা গ্রহণের পর টিটু উচ্চ আদালতে আত্মসমর্পণ ও আপিল করেন। উচ্চ আদালত তাঁর মৃত্যুদণ্ড রহিত করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। এরপর তিনি রাষ্ট্রপতির কাছে সাধারণ ক্ষমার আবেদন জানালে তা মঞ্জুর হয়। গত ৯ মার্চ তিনি কারাগার থেকে মুক্তি পান।

এর আগে রাষ্ট্রপতি বিচার বিভাগকে পাশ কাটিয়ে সাজেদা চৌধুরীর ছেলেকে ক্ষমা করে দিয়েছিলেন। এরপর বিএনপি নেতা গামা হত্যাকান্ডে মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত ১১ জন আসামীকে ক্ষমা করে দিয়েছেন। এবার আরো একজন খুনী ছাত্রলীগ নেতাকে ক্ষমা করে দিয়ে মুক্ত করে দিয়েছেন। এর মানে কি রাষ্ট্রপতি নিজ দলের সন্ত্রাসীদের খুনের Open License দিয়ে দিচ্ছেন? আওয়ামী লীগের কাউকে তাহলে খুনের অপরাধেও শাস্তি দেয়া যাবেনা? আওয়ামী লীগ করলে সবকিছুই ক্ষমা করা হবে?

খবর সূত্রঃ প্রথম আলো