ক্যাটেগরিঃ খেলাধূলা

এতোদিন স্বপ্ন দেখেছিলাম ইন্ডিয়াকে হারাবো। কিন্তু আজকে বাংলাদেশের অসাধারণ ব্যাটিং দেখে আমি ট্রফির স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছি।

আজকের ম্যাচে আমরা হয়তো হেরেছি। কিন্তু আমরা কি ভারতের কাছে হেরেছি? অবশ্যই না। আমরা হেরেছি আমাদের বোকামীর জন্য। যেখানে অন্য সবার মতো সাকিবও কিছুদিন আগে থেকে বলছিলেন টসে জিতে ব্যাটিং নেবেন সেখানে হঠাৎ করে ফিল্ডিং নেয়ার মতো একটি বাজে সিদ্ধান্ত তিনি কেনো নিলেন ঠিক মাথায় ঢুকছে না। সাকিব ব্যাটিং না নেয়ায় ধোনিও মনে হয় যথেষ্ঠ অবাক হয়েছিলেন।

সাকিবের বোঝা উচিৎ ছিলো ইন্ডিয়ার ব্যাটিং লাইন আপ যদি ৩২০+ করতে পারে তাহলে সেটা বাংলাদেশের জন্য চেজ করা কঠিন হবে। তার উপর রাতে ফ্লাড লাইটের আলোতে ব্যাটিং, শিশিরের অত্যাচার আর ফিল্ডিং-এর ক্লান্তি তো আছেই।
বাংলাদেশ আজ যে ব্যাটিং দেখালো তাতে এরকম ভাবাটা ভুল হবে না যে আগে ব্যাটিং করলে বাংলাদেশ ৩০০+ করতে পারতো। আর বাংলাদেশ সেটা করার পরে ইন্ডিয়া বেকায়দায় পড়তো। কারণ ইন্ডিয়ার বদনাম আছে তারা চাপ সামলাতে পারে না।

যাই হোক। আমরা আজকে হেরেছি কিন্তু আমরা প্রমান করেছি যে আমরাও ভারতের চেয়ে কোন অংশে কম নই। কয়েকটি ভালো সিদ্ধান্ত আমাদের জিতিয়ে দিতে পারে যে কোন ম্যাচ। আমরা সেই ক্ষমতা ধারণ করি।

আমি সত্যিকার অর্থেই আজ মাশরাফিকে মিস করেছি। নির্বাচকরাও নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন যে মাশরাফিকে অবহেলা করার খেশারত কিভাবে দিতে হয়। বিশেষ করে প্রতিপক্ষ যখন ভারত।

আমরা বেশ ভালো একটা শিক্ষা দিয়ে বিশ্বকাপটা শুরু করেছি। এটা একেবারে কম কথা না।

গো টাইগার্স। দেখা হবে বিজয়ে।


তোমরা একা নও। ১৪ কোটি প্রানের স্পন্দন আজ তোমরা এগারো জনের হৃদস্পন্দনের সাথে মিশে গেছে।