ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

কি…!! আমার দরজায় হাত দিয়েছে এক নগন্য মানুষ……!!…এত বড় স্পর্ধা……কাট হাত..!!…কি…!! ঘরের ভেতরে উঁকিও দিয়েছে…তুলে নে চোখ…!!!……জানি না এ কেমন ইশ্বর…তবুও জানতে হয়, শুনতে হয়…উপায় নেই, চোখ বন্ধ রাখতে পারি-কিন্তু কান তো আর বন্ধ রাখা যায় না। শান্তিতে নোবেল বিজয়ী আরব ভূমিতে মানুষ তার মর্যাদা নিয়ে মরতে পারল না…সারা বিশ্বের সামনে লাঞ্ছিত হয়ে মরতে হল! আমি ভাবছি, আমি যদি ঐ মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত কারও বাবা-মা বা সন্তান হতাম…ঐ ভিডিওটা দেখে, আমি কি আমার জীবনের বাকি দিনগুলো স্বাভাবিকভাবে কাটাতে পারতাম ! তবু আইন বলে কথা, তাও আবার মানুষের তৈরী আইন নয়; কঠোর তো হবেই। আর সেই কঠোর আইন আরো কঠোর ভাবে বাস্তবায়ন করে মানুষের জীবন শান্তিময় করে রাখতে হবে। যারা বিলাস-ব্যাসনে পশ্চিমাদের হারিয়ে সলিড সোনার তৈরী রোলস রয়েলস আর গোটা কয়েক পশ্চিমা মেয়ে বন্ধু নিয়ে সাগর পাড়ের ভিলায় দিন কাটায়, তাদের জীবন তো আমাদের শান্তিময় করতেই হবে। সারা পৃথিবীর কোটি কোটি শিশুকে অভুক্ত রেখে কেউ যখন দিনান্তে কিশোরী কিনে রাত্রি কাটায় রঙ বেরঙ্গের পানীয় তে আকণ্ঠ ডুবে……তখন কোথায় থাকে ইসলাম……??

এসব থাক, পরের এত সমালোচনা না করে নিজেদের কানটা একটু মলি। আমাদের ভাব সাব দেখে যে কারও মনে হতে বাধ্য যে, বাঙ্গালির জন্মই হয় চাকর, চোর না হয় চামচা হবার জন্য। সেই ব্রিটিশ পিরিয়ড হতে আমাদের কি যে হল আমরা আর মেরুদন্ডী মানুষ হতে পারলাম না। আসুন এর কারন টা একটু অনুসন্ধান করি।

-রিদওয়ানুল মসরুর, ঢাকা