ক্যাটেগরিঃ প্রকৃতি-পরিবেশ

 

বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ সুন্দরবন। আর এই সুন্দরবনেই বাঙালী জাতির গর্বের প্রতীক রয়েল বেঙ্গল টাইগার’। সুন্দরবনের জীব বৈচিত্র্য টিকিয়ে রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে এই ডোরাকাটা বাঘ। আজ থেকে ৫০ বছর আগে বাঘের সংখ্যা ছিলো ৪০ হাজার। সেই বাঘের সংখ্যা এখন কমে দাঁড়িয়েছে ৪৪০টিতে । বাঘ-মানুষের সংঘাত নিয়ে রইচউদ্দিন রোমেলের ৪ পর্বের ধারাবাহিক রিপোর্টের আজ দেখুন ১ম…পর্ব ।
প্যাকেজ:প্রাণীবিদ ড. আনোয়ারুল ইসলাম বলেন বাঘ গননার পদ্ধতি সঠিক হয়নি।

১৯৮২ সালে বন বিভাগের জরিপ অনুযায়ী সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা ৪৫৩ টি। ১৯৯৪ সালের শুমারি অনুযায়ী রয়েল বেঙ্গল টাইগারের সংখ্যা ৩৭০ টি। ২০০৪ সালের বন বিভাগ ও ওয়াইল্ড লাইফ ট্রাষ্ট অব
বাংলাদেশ এর বাঘ শুমারি অনুযায়ী বাঘের সংখ্যা ৪৪০টি।

বনবিভাগের অপর এক তথ্য অনুযায়ী গত ১০ বছরে সুন্দরবনের পূর্ব ও পশ্চিম এলাকাতে ২৭টি বাঘ মারা গেছে গনপিটুনীতে। এই ২৭টি বাঘের মধ্যে ১২টি সুন্দরবনের পূর্ব বিভাগ ও পশ্চিম বিভাগের ১৫টি বাঘ হত্যার রের্কড করা হয়েছে। যার মধ্যে শুধুমাত্র শ্যামনগর উপজেলায় গত ১০ বছরে বাঘ লোকালয়ে প্রবেশ করলে জনগণ পিটিয়ে মারে ৭টি বাঘ।

চামড়া আর হাড়গোড়ের লোভে চোরা শিকারীর হাতেও মারা পড়ে বেশ কিছু বাঘ। এছাড়া প্রাকৃতিক কারনে বাঘের মৃত্যুতো রয়েছেই। এসব কারণে বাঘের সংখ্যা কতো তা নিশ্চিত করে বলা মুশকিল।

রইটউদ্দিন রোমেল ।