ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

“তাহলে যারা দেশের টাকা আত্মসাৎ করে বিদেশে পাচার করে তাদের সকলের দেশ ত্যাগ করা উচিত।”

অবশেষে সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে সুরঞ্জিত বাবু পদত্যাগ করেছেন। এটিকে আমি শুধু পদত্যাগ বলবনা, আমি বলব এটি এমন একটি সিদ্ধান্ত যার ফলে সুরঞ্জিত বাবু বাংলাদেশের গণতন্ত্রের ইতিহাসে সাক্ষী হয়ে থাকবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বের প্রতি স্রদ্ধা, দুর্নীতি মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়, গণতন্ত্রের ভিত্তিকে আরও মজবুত, বাংলাদেশের রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের নিকট একটি দৃষ্টান্ত এবং বিরোধী দল (বিএনপির) সন্দেহের বুকে তীর মেরে সুরঞ্জিত বাবুর এ পদত্যাগ বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে নিঃসন্দেহে বিরাট একটি ভুমিকা রাখবে ।

এ ঘটনাটি ঘটবার পর পরই আমি একটি ব্লগ প্রবন্ধে লিখেছিলাম বিএনপি সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের বিষয়টি নিয়ে ইস্যু তৈরি করবে। জানতাম পদত্যাগ করলেও তারা নতুন বাহানা শুরু করবে, ঠিক তাই, তারা কথায় কথায় অমুকের পদত্যাগ,তমুকের পদত্যাগ, প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ চেয়ে বসেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করব, ওই গাড়ির চালক এখন কোথায় রয়েছে জানিনা, তবে কুচক্রী মহলেরা যেন তাকে গুম করে ফেলতে না পারে। কারণ, ওই কুচক্রী মহলের, গাড়ির চালকে দিয়ে ঘটনাটি ঘটিয়ে থাকার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেয়া যায়না, সে ক্ষেত্রে তারা গাড়ির চালকে গুম করে ফেলতে পারে। তাই এ বিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আপনি যথাযথ পদক্ষেপ নেবেন বলে আমরা আশা করি।

সুরঞ্জিত বাবুর মন্ত্রিত্ব ছাড়ার ঘোষণার পর বিকালে এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দেন বিএনপির মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর_____

ফখরুল বলেন, “প্রধানমন্ত্রী কেন সুরঞ্জিত সেনগুপ্তকে প্রটেকশন দিলেন না (রক্ষা করেননি)- তা আমাদের বোধগম্য নয়। এমন হতে পারে, আওয়ামী লীগ ও সুরঞ্জিত সেন গুপ্তের রাজনীতি একই পথে চলছে না।”
সূত্র____ Mon, Apr 16th, 2012 বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের পদত্যাগের পর সরকারের ‘পদত্যাগ’ দাবি করেছে বিএনপি।
সূত্র____ Mon, Apr 16th, 2012 বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

ব্যক্তিগত সহকারীর ‘অর্থ কেলেঙ্কারীর দায়’ নিয়ে সোমবার দুপুরে সুরঞ্জিতের মন্ত্রিত্ব ছাড়ার ঘোষণার পর বিকালে এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দেন বিএনপির মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, “পদ্মা সেতু প্রকল্প দুর্নীতির কারণে অর্থায়ন বন্ধ করে দিয়েছে বিশ্ব ব্যাংক। সংসদীয় কমিটি প্রস্তাব নিয়ে বিমানের দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছে। প্রতিটি মন্ত্রণালয়ে দুর্নীতি হচ্ছে।”

“আমরা মনে করি, সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের পদত্যাগে প্রমাণিত হয়েছে সরকারের কাঠামো দুর্নীতিগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। তাই আমরা বলব, আর কাল বিলম্ব না করে সরকারের পদত্যাগ করা উচিৎ।”

সরকার ও সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের ‘রাজনীতি এক পথে’ না চলার কারণে তাকে পদত্যাগ করতে হয়ে থাকতে পারে বলেও এ সময় মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল।

ফখরুল বলেন, “এই পদত্যাগের ফলে তদন্ত সুষ্ঠু হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। কারণ ওই গাড়ির চালক এখন নিখোঁজ। এপিএস উধাও। মহাব্যবস্থাপক ইউসুফ মৃধা তদন্ত কমিটির সামনে চা খেতে খেতে জবানবন্দি দিয়েছেন।

“তারা দুর্নীতির অর্থ ভাগ-বাটোয়ারা করে সবাই মিলে নিয়েছেন। তাই তদন্ত ফলাফল কী হবে, তা আমাদের জানা আছে।”
সূত্র____ Mon, Apr 16th, 2012 বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
অথচ ফখরুল সাহেবই, সুরঞ্জিত বাবু পদত্যাগের পূর্বে তার পদত্যাগের জন্য জোর প্রচারণা চালাচ্ছিল।

ফখরুল সাহেবের নিকট জনগণের জিজ্ঞাসা, আপনারা কি হাওয়া ভবনের ব্যবসার কথা ভুলে গেছেন ? কোকোর সিঙ্গাপুরে মানি পাচারের কথা কি সহজেই ভুলে গেলেন ? ভুলে গেলেন তারেকের অর্থ পাচারের কথা ? হ্যাঁ ভুলারই কথা, সরকারের কিছু কাজের সাফল্যে আপনারা ভাল-মন্দ সব ভুলে গেছেন ।

আপনারা ভুললে কি হবে, জনগন ভুলে নাই । জনগণের দাবী হল, সুরঞ্জিত বাবু দায়ী প্রমাণ হবার পূর্বেই যদি তার পদত্যাগ এবং সাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবী করতে পারেন (যখন-তখন), তাহলে যারা দেশের টাকা আত্মসাৎ করে বিদেশে পাচার করে তাদের সকলের দেশ ত্যাগ করা উচিত। নইলে বাংলার মানুষ জনগণ ঝাণ্ডা হাতে তাদের জবাব দেবে।

দৈনিক প্রথম আলোর মাননীয় সম্পাদক সাহেব, জানিনা আপনি আমার এ লেখা দেখবেন কিনা, আপনার নিকট আমার আবেদন, যদি এই আর্টিকেলটি প্রকাশ উপযুক্ত হয় তাহলে আপনার বহুল প্রচারিত “দৈনিক প্রথম আলো” পত্রিকায় প্রকাশ করার জন্য বিনীত আনুরোধ করছি।

মোহাম্মাদ সহিদুল ইসলাম (সিঙ্গাপুর প্রবাসী )
(M.com _Management, N.U._BD._1998)
মেইল_ Sahidul_77@yahoo.com
H/P_6594670849