ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

উটপাখি একটি অত্যন্ত কৌতূহলোদ্দীপক প্রাণী। ইংরেজি ভাষায় প্রচলিত আছে hiding the head in the sand like an ostrich যার প্রতিফলন ঘটেছে ব্যবসাশাস্ত্রে ostrich effect নামে। এই অস্ট্রিচ এফেক্ট দিয়ে বোঝানো হয় ঝুঁকিপূর্ণ পরিস্থিতি এড়ানোর জন্য ”ঝুঁকিটি নেই” এমন ভান করা। অথচ মজার ব্যাপার হলো ওয়াইল্ড লাইফ বায়োলজি বা অস্ট্রিচ বায়োলজি বলছে উটপাখিদের এমন কোন স্বভাবের কথা কোন প্রাণিবিজ্ঞানী বা উটপাখি বিশেষজ্ঞ আজ পর্যন্ত দেখতে পাননি। এটি উটপাখিদের প্রতি অবিজ্ঞানী মানুষদের নিতান্তই একটি ’বদনাম’ রটানো ছাড়া আর কিছু নয়। এই বদনামের সূত্র ধরেই আমাদের দেশের একটি কর্পোরেট গোষ্ঠি কিছুদিন যাবৎ একটি স্লোগান প্রচার করছে -’উটপাখির জীবন চাই না’।

এবার আসুন উটপাখিদের কিছু স্বভাব ও সক্ষমতা বিষয়ে জানি-
১. এরা দলবদ্ধভাবে চলাফেরা করে,
২. প্রধানত দিনের বেলায় বিচরণ করে, তবে প্রয়োজন হলে রাতেও চলাফেরা করে,
৩. তাদের তীক্ষ দৃষ্টি ও শ্রবণশক্তি আছে, এবং
৪. জীবন সংশয় হলে তারা খুব দ্রুত বিপজ্জনক স্থান ত্যাগে সক্ষম, দু’পেয়ে প্রাণিদের মধ্যে উটপাখিরাই দ্রুততম।

উপরের চারটি স্বভাব ও সক্ষমতা থেকে আমি অন্তত ব্যক্তিগতভাবে উটপাখির জীবন কামনা করবো যেখানে আমি অন্য মানুষদের সাথে দলবদ্ধভাবে চলতে পারবো, দিনে কাজ করবো, রাতে ঘুমাবো, দরকার হলে মাঝে মাঝে রাত জেগে চা পান করবো। দূরদৃষ্টি ও তীক্ষ শ্রবণশক্তি কার কাম্য নয়? অনাকাঙ্খিত বিপদ থেকে সরে যেতে কে না চাইবে? দ্রুততম প্রাণীদের একটি হতে পারার আনন্দ ও সুবিধা নিশ্চয়ই অনেক। মানবিক মূল্যবোধ বজায় রেখে যদি আমি উটপাখিদের কিছু শরীরবৃত্তীয় সুবিধা পেতে পারি আমি অবশ্যই তা নিতে চাইবো, আমি উটপাখিদের জীবনের পুরোটা না হোক, কিছু কিছু পেতে চাইবো।

যারা উটপাখিদের জীবন চাইনা স্লোগানটি প্রচার করছেন তাদের নিয়ে সবার না হলেও অনেকের অভিযোগ আছে তারা নিজেরাই হিপোক্রেটিক অস্ট্রিচ এফেক্টে আক্রান্ত। শত শত উদাহরণ দেয়া যাবে হয়তো, তবে এ নিয়ে আমি গবেষণা করি না। শুধু হঠাৎ করে পাওয়া একটি সংবাদ শিরোনাম পাঠকের সুবিধার জন্য তুলে দিলাম।

প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে (ডিসেম্বর, ২০০৮) বাংলাদেশের সমুদ্রসীমার ভেতর ভারত তার তেল-গ্যাস জরিপ জাহাজ পাঠিয়ে জরিপ শুরু করায় দু’দেশের মধ্যে একটু উত্তেজনা দেখা দেয়, ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব করে আমাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়। এ নিয়ে পরদিন দেশের বিভিন্ন কাগজের সংবাদ শিরোনামটি দেখুন

ইত্তেফাক: জরিপ বন্ধ করে জাহাজ ফিরিয়ে নেয়ার আহ্বান, ভারতের অস্বীকৃতি
ইনকিলাব: কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত জাহাজ সরিয়ে নেয়া হবে না – পিনাক
আমার দেশ: সার্ভে শেষ না করে আমরা ফিরে যাবো না – পিনাক
মানবজমিন: জরিপ শেষ করেই নৌজাহাজ এলাকা ছাড়বে – ভারতীয় হাইকমিশনার
নয়া দিগন্ত: জরিপ শেষ না করে জাহাজ সরাবে না ভারত
bdnews24: জাহাজ সরাবে না ভারত,আলোচনার তাগিদ
আমাদের সময়: (ভারতের সার্ভে জাহাজ রয়েছে)
ভোরের কাগজ: (নিশ্চুপ)
সমকাল: (নিশ্চুপ)
প্রথম আলোঃ বাংলাদেশের জলসীমা থেকে সরে গেছে ভারতের জরিপ জাহাজ

প্রিয় পাঠক, প্রকৃত মাথা গোঁজা উটপাখিদের চিনে নিন।