ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

স্বতন্ত্র রেলবিভাগের সাংগঠনিক কাঠামোর জন্য সচিবসহ ১৩ পদের অনুমোদন দিয়েছে অর্থমন্ত্রণালয়। রেলকে জনসেবামূলক প্রতিষ্ঠানের রূপান্তর, রেলের বিকাশ ও সমৃদ্ধির লক্ষ্যে রেলের স্বতন্ত্র বিভাগ গঠনের সংবাদ আনন্দের। রেলের জন্য একটা স্বতন্ত্র মন্ত্রণালয়ের দাবি পরিবেশ কর্মীদের দীর্ঘদিনের।

রেল পরিবেশ বান্ধব, সুলভ, ভূমি সাশ্রয়ী, রাষ্ট্রীয় মালিকাধীন একটি জনপ্রিয় যোগাযোগ মাধ্যম হলেও বিগত বছরগুলোতে রেলের সংকোচন করে, শুধুমাত্র ব্যবসায়িক স্বার্থে সড়ক বৃদ্ধি করা হয়েছে। রেল সংকোচন করে সড়ক বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে কৃষি জমি হ্রাস, নদী ও জলাধার ধংশ, পরিবেশ দূষণ, দূঘর্টনার বৃদ্ধি পেয়েছে। অপর দিকে জনগণের যাতায়াত জিম্মি হয়ে পড়ছে এক শ্রেণীর পরিবহন ব্যবসায়ীর হাতে। ইচ্ছে মতো সরকার, প্রশাসন ও জনগনকে জিম্মি করে ভাড়া বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে যাতায়াত ও পরিবহন খরচ বৃদ্ধি পাচ্ছে। যা বৃদ্ধি করছে খাদ্য দ্রব্যমূল্য ও মানুষের জীবন যাত্রার ব্যয়।

এমতবস্থায় জনসাধারণকে সড়ক পরিবহনের জিম্মি দশা হতে মুক্ত, দ্রব্যমূল্য এবং দূঘর্টনার হ্রাস, ভূমির পরিমিত ব্যবহার নিশ্চিত করতে রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থাপনায় রেলের প্রসার নিশ্চিত প্রয়োজন।