ক্যাটেগরিঃ নাগরিক সমস্যা

 

বাজারে নিত্য প্রযোজনীয় জিনিসের মূল্য রমজান তো বহু দূরে, শবেবরাতের পূর্বেই বল্গাহীন ভাবে বেড়ে চলেছে। বিশেষ করে মাছ, মুরগি, পেয়াজ, চিনি, তেল, মসলা ইত্যাদির মূল্য হু হু করে বেড়ে চলেছে । অনেক সময় দেখা যায় সরকার কিছু কিছু পন্যের দাম নিদিষ্ট করে বেধে দেয়, জিনিসের মূল্য কমে যাওয়ার পরও ব্যবসায়ীরা বেধে দেওয়া মূল্যে পণ্য বিক্রি করে অতিরিক্ত মুনাফা লুফে নেয়। এতে সাধারণ জনগণ প্রতারিত হন এবং তারা এই অতিরিক্ত মূল্য পরিশোধে বাধ্য হন । তা ছাড়া সরকারের কিছু কিছু মন্তব্য অসাধু ব্যবসায়ীদের পণ্য মূল্য বৃদ্ধিতে উৎসাহী করে তোলে , যেমন “জনগণের ক্রয় ক্ষমতা বেড়েছে” এই শব্দ কটি যেন মরার উপর খাড়ার ঘা হয়ে দাড়ায় । তাই বাজার নিয়ন্ত্রণে জনগণের স্বার্থকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিবেচনায় রাখতে হবে ।
শবেবরাতকে সামনে রেখে, ২০ টাকার কাঁচা মরিচ ১০০ টাকা, ২৪ টাকার পেয়াজ ৩৮-৪০ টাকা, ৬০ টাকার চিনি ৭০ টাকা, ১৪০ টাকার বয়লার ১৭০ টাকা কিভাবে হলো? রাতারতি কি সারাদেশে উৎপাদন বা সরবরাহ হঠাৎ কমে গেছে? কোথায় কি কোন ভূমিকম্প বা বন্যায় সব তলিয়ে গেছে? যে হঠাৎ বাজারের এই দশা। দেশে কি কোন প্রশাসন বা নিয়ন্ত্রক নেই ?