ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

 

বানরের আকৃতি থেকে মানুষের বর্তমান রুপান্তর অনেক বিবর্তমানের মাধ্যমে। এটি ব্যবহার,চলাফেরা,স্বভাবের ও রুপান্তর। যখন মানুষ বনে বাস করত , তখন তারা এক সাথে থাকত,শিকার থেকে শুরু করে যাবতীয় কাজের সময় আর কি সব সময় তারা এক সাথে থাকত বণ্যপ্রাণী,অন্য জাতি,ও দুর্যোগ থেকে বাসতে। সেই এক সাথে থাকার কারনেই আজ ও তারা টিকে আছে।আজ ব্যক্তি স্বাতন্ত্র্যবাদের আন্দলোন চলছে।যদিও তারা তাকে গনতন্ত্র বলতে চাই মূলত এখানে গণতন্ত্রের মূল ধারার একটিও নেই।এখানে নিজে বাসতে চাই সবার থেকে ভালো।তার দৃষ্টিতে সে নিজেকে নায়ক ভাবে।সে ভাবে তার প্রাপ্যটায় বেশি।সবার চেয়ে সে বেশি পেতে চাই। সে সবার থেকে উচুতে থাকতে চাই। এজন্য তাকে পায়ের নিচে কিছু রাখতে হয়, সে সর্বদা দুর্বল কে রাখতেই পছন্দ করে। সে নিচের দিকে তাকায় না,তার নজর উঁচুতেই থাকে।এক সময় তার পায়ের নিচ থেকে নিচের বস্তুটি সরে যাই না মরে যাই সেটার খবর সে,এমন কি কেউ রাখে না।তাই এক সময় সেও উচু থেকে পড়ে যাই/যাচ্ছে।এদের সাম্প্রতিক এ বিবর্তনের জন্য এদের ব্যক্তি স্বাতন্ত্রবোধ দায়ী।বাসতে হলে অবিলম্বে এক সাথে চলতে হবে।কারণ এখানেও আছে অজস্র বাঘ, সিংহ,সাপ,কুমির,হায়েনা,নেকড়ে।একা পেলেই ধরবে এতে কোন সন্দেহ নেই।১৯৭১ স্বাধীনতা যারা মেনে নিতে পারেনি,তারা আজও ধর্মের প্রশ্নে সুযোগ খোঁজে। জন্মের পর হলেও হানাদারের বিষ যাদের দেহে ঢুকেছিল তারাও তাদের কথা বলে। সেই কারনেই সম্ভবত জিয়াউর রহমান হত্যার বিচার হয়নি। সুতরাং ওদের থেকে সাবধান।হয় ওদের দমন কর নতুবা অপেক্ষাই থাকো নতুন রুপান্তরের।